বিএনপির নেতা-কর্মী গ্রেপ্তারের ‘কারণ’ জানালেন নৌমন্ত্রী

  

পিএনএস ডেস্ক : বিএনপির নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার করার ‘কারণ’ ব্যাখ্যা করেছেন নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান। নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করেই বিভিন্ন মামলায় এজাহারভুক্ত আসামিদের পুলিশ গ্রেপ্তার করছে বলে মত দেন তিনি।

মন্ত্রীর অভিযোগ, বিএনপি তাদের কর্মসূচির নামে গণতন্ত্রের আন্দোলনের নামে বিগত দিনে নৈরাজ্য চালিয়েছে।

আজ শুক্রবার সকালে মাদারীপুর শহরে এলজিইডির বাস্তবায়নে ২ কোটি ৫ লাখ টাকা ব্যয়ে সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

শাজাহান খানের অভিযোগ, বিএনপির নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তারে সরকারের কোনো হাত নেই। সরকার কখনই বিএনপির ওপরে কোনো হয়রানি করছে না। রাজনৈতিক উদ্দেশে বিএনপি এ অভিযোগ তুলেছে।

আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, আইনের বিধান রয়েছে, কোনো মামলার আসামি আদালতে হাজির না হলে তাঁদের পুলিশ গ্রেপ্তার করতে পারে। গ্রেপ্তার আসামিরা এখন আইনের মাধ্যমে জামিন নিয়ে আবার ফিরে আসবে।

বিএনপির ক্ষমতায় থাকার সময়ের কথা উল্লেখ করে নৌমন্ত্রী বলেন, ‘যখন বিএনপি ক্ষমতায় ছিল, তখন আমাদের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমকে পুলিশ দিয়ে পিটিয়েছিল। আমাদের ওপর পুলিশ হয়রানি করেছিল। নারী নেতাদের টেনেহিঁচড়ে গাড়িতে তুলে নিয়ে গিয়েছিল। আওয়ামী লীগের অনেক নেতা-কর্মীকে পুলিশ রাস্তায় নির্মমভাবে পিটিয়েছিল।’

ধ্বংসাত্মক কাজে আওয়ামী লীগ জড়িত নয় বলে মন্তব্য করেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের কেউ কোনো ধ্বংসাত্মক কাজে জড়ায়নি। বিএনপির মতো মানুষ পুড়িয়ে, পিটিয়ে, কুপিয়ে হত্যা করেনি। বিএনপির কোনো কর্মসূচির কথা শুনলে মানুষ ভয় পায়।

সেখানে মাদারীপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মিয়াজউদ্দিন খান, জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সরোয়ার হোসেন, এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মলয় কুমার চক্রবর্তী, সাবেক পৌর মেয়র নুর-ই আলম চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পিএনএস/জে এ /মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech