আ.লীগের জনসভায় না যাওয়ায় ব্যবসায়ীকে হাতুড়িপেটা

  



পিএনএস ডেস্ক: ৭ মার্চ ঢাকায় আওয়ামী লীগের জনসভায় না যাওয়ায় ঢাকার আশুলিয়ায় রাসেল হাওলাদার (২৭) নামের এক ব্যবসায়ীকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়েছেন যুবলীগের নেতাকর্মীরা। গতকাল রাতে আশুলিয়ার জামগড়া ছয়তলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

গুরুতর আহত গেঞ্জি ব্যবসায়ী রাসেল হাওলাদার বর্তমানে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

আশুলিয়ার ইয়ারপুর ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সোহেল সরকারের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা রাসেল হাওলাদারকে মারধর করেন বলে স্বীকার করেছেন আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহ্বায়ক কবির হোসেন সরকার। ওই ব্যবসায়ীকে ছিনতাইকারী দাবি করে তাঁকে আরো পেটানো উচিত ছিলো বলে মন্তব্য করেন তিনি।

আহত ওই ব্যবসায়ী জানান, গত বুধবার তাঁকে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত আওয়ামী লীগের জনসভায় যেতে বলেন আশুলিয়ার ইয়ারপুর ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সোহেল সরকার। এ সময় কাজ আছে বলে যেতে পারবেন না বলে জানান তিনি।

পরে গতকাল রাতে রাসেল হাওলাদারকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যান সোহেল সরকার। এ সময় সোহেল সরকার তাঁকে আশুলিয়ার ছয়তলা এলাকায় নিয়ে গিয়ে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা করেন বলে অভিযোগ করেন রাসেল হাওলাদার।

একপর্যায়ে রাসেল হাওলাদারকে মৃত ভেবে পালিয়ে যান সন্ত্রাসীরা। পরে স্থানীয় লোকজন তাঁর গোঙানি শুনে তাঁকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

মারধরের সময় সোহেল সরকারের সঙ্গে আরো ১০ থেকে ১৫ জন ছিলেন বলেও জানান রাসেল হাওলাদার।

স্থানীয়দের অভিযোগ, সোহেল সরকার কিছুদিন আগে আশুলিয়ার ইয়ারপুর ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়কের পদ পান। পদ পেয়েই তিনি এলাকার নিরীহ লোকজনের ওপর অত্যাচার শুরু করেন।

তাঁর কথা মতো কেউ কোনো কাজ না করলে সন্ত্রাসী দিয়ে তাদের তিনি পিটিয়ে আহত করার চেষ্টা করেন বলেও জানান স্থানীয় লোকজন। অবিলম্বে সোহেল সরকারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান তাঁরা।

এ ঘটনায় যেই জড়িত থাকুক না কেনো তাদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা-১৯ আসনে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য ডা. এনামুর রহমান।

অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশ।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech