'আমরা বিএনপি- জামায়াত কারোর সঙ্গেই নেই'

  

পিএনএস ডেস্ক : নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, ‘আমরা জামায়াতের সঙ্গেও নেই, আবার বিএনপির সঙ্গেও নেই। আমাদের নির্বাচনি ক্যাম্পেইন হচ্ছে দেশ বাঁচাতে নৌকা থেকে বিরত থাকতে হবে। আমরা বলছি না আমাদেরকে প্রধানমন্ত্রীত্ব বা মন্ত্রীত্ব দিতে হবে। একইভাবে বলি মালয়েশিয়ায় কোনও দল যদি ১৫ জন সংসদ সদস্য নিয়ে প্রধানমন্ত্রী পেতে পারে, তাহলে আমরা তো ৫০ বা ৬০টি আসন পেতে পারি। কোনও ব্যক্তি, গোষ্ঠী বা পরিবারকে ক্ষমতায় বসানো গণতন্ত্র হতে পারে না। এজন্য আমরা ভারসাম্যের ভিত্তিতে আলাদা জোট অথবা ঐক্য করতে চাই। এ জোটে সরকারবিরোধী বিএনপিসহ সব দলই থাকতে পারবে।’

যুক্তফ্রন্টের বৈঠক নিয়ে শুক্রবার (২০ জুলাই) সকালে গুলশানে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিকল্প ধারা বাংলাদেশের মুখপাত্র মাহী বি চৌধুরী।

জাতীয় ঐক্যে জামায়াতকে নেওয়ার প্রসঙ্গে জানতে চাইলে মান্না বলেন, ‘জামায়াত নির্বাচনি প্রক্রিয়ায় আসতে পারবে না, কারণ তাদের নিবন্ধন নেই। জামায়াত হয়তো বিএনপি থেকে ১০টা আসন পেতে পারে। আওয়ামী লীগ থেকেও পেতে পারে। কারণ আওয়ামী লীগের মধ্যেও অনুপ্রবেশকারীর অভাব নেই। তারা তো দাঁড়িপাল্লা নিয়ে নির্বাচন করতে পারবে না। কারণ জামায়াত সাংগঠনিক বা রাজনৈতিকভাবে নেই। এখনই জামায়াত-জামায়াত করে ঐক্য বাধাগ্রস্ত করতে চাই না।’

সংবাদ সম্মেলনে যুক্তফ্রন্টের শরীক দল বিকল্পধারার যুগ্মমহাসচিব মাহী বি চৌধুরী বলেন, ‘বিভিন্ন সংবাদপত্রে আমরা বিএনপির কাছে ১৫০টি আসন চেয়েছি বলে প্রচার হয়েছে। তা সত্য নয়। আমি এই বিষয়ে কাউকে কিছু বলিনি। আমি বলেছি যে ভারসাম্যের ভিত্তিতে জাতীয় ঐক্য হতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশে যে দুঃশাসন চলছে, তা থেকে দেশকে রক্ষা করতে হবে। এজন্য বর্তমান সরকারের বাইরে যতগুলো রাজনৈতিক দল আছে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাইরের দল ছাড়া তাদের সবার মধ্যে একটা জাতীয় ঐক্য গড়ে তোলতে হবে। তাহলে এই সরকারের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে পারবো। গণতন্ত্রকে রক্ষা করতে পারবো।’

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech