বিএনপি নেতা রফিকুল কারাগারে

  

পিএনএস ডেস্ক : দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য রফিকুল ইসলাম মিয়াকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। আজ বুধবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত এই আদেশ দেন।

এর আগে রফিকুল ইসলামের জামিন চান তাঁর আইনজীবীরা। আদালত তা নাকচ করে তাঁকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রফিকুল ইসলাম মিয়াকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। আজ তাঁকে আদালতে হাজির করা হয়।

ঢাকার বিশেষ জজ-৬ আদালত সম্পদের হিসাব জমা না দেওয়ার মামলায় গতকাল মঙ্গলবার রফিকুল ইসলাম মিয়াকে তিন বছর কারাদণ্ড, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও তিন মাসের জেল দেন। রায় ঘোষণার সময় আদালতে হাজির না থাকায় তাঁর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

রফিকুলের আইনজীবী ইকবাল হোসেন বলেন, রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করা হবে।

রায়ে বলা হয়, দুর্নীতি দমন ব্যুরোর (বর্তমানে দুর্নীতি দমন কমিশন) অনুসন্ধানে জানা যায়, রফিকুল ইসলাম মিয়ার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ আছে। পরে ১৯৫৭ সালের আইনের ৪ (১) ধারায় রফিকুল ইসলাম মিয়াকে সম্পদের হিসাব জমা দেওয়ার জন্য ২০০১ সালের ৭ এপ্রিল নোটিশ দেওয়া হয়। নির্ধারিত ৪৫ দিনের মধ্যেও সম্পদের হিসাব দেননি রফিকুল ইসলাম মিয়া।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণী থেকে জানা গেছে, ২০০১ সালের ১০ জুন রফিকুল ইসলাম মিয়া সম্পদের হিসাব জমা দেওয়ার জন্য দুর্নীতি দমন ব্যুরোর দেওয়া নোটিশ গ্রহণ করেন। কিন্তু তিনি সম্পদের বিবরণ জমা দেননি। এই অভিযোগে ২০০৪ সালের ১৫ জানুয়ারি তাঁর বিরুদ্ধে উত্তরা থানায় মামলা হয়। তদন্ত শেষে ওই বছরের ৩০ নভেম্বর আদালতে তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়। আদালত ওই অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে গত বছরের ১৪ নভেম্বর রফিকুলের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরু করেন। রাষ্ট্রপক্ষ থেকে ছয়জন সাক্ষীকে আদালতে উপস্থাপন করা হয়।

দুদকের পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন দুদকের কৌঁসুলি মোশাররফ হোসেন কাজল।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech