অবশেষে ঐক্যফ্রন্ট ছাড়লেন কাদের সিদ্দিকী

  

পিএনএস ডেস্ক : মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ত্যাগ করেছেন।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ এনে সোমবার (৮ জুলাই) জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হক হলে এক সংবাদ সম্মেলনে ঐক্যফ্রন্ট ছাড়ার ঘোষণা দেন তিনি।

এসময় কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘নির্বাচন-পরবর্তী এই ৭ মাস জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অস্তিত্বই খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। আনুষ্ঠানিকভাবে মতিঝিলে তার (ড. কামাল হোসেন) অফিসে একটি অসমাপ্ত বৈঠক ছাড়া কখনও কোনও নির্দিষ্ট বিষয়বস্তু নিয়ে কোনও মিটিং হয়নি। তাতে মনে হয় কোনোকালে কখনও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নামে বাংলাদেশে কোনও রাজনৈতিক জোট গঠন হয়নি।’

তিনি বলেন, ‘এমতাবস্থায় দেশের জনগণের প্রকৃত পাহারাদার হিসেবে গঠিত কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ বসে থাকতে পারে না। জাতীর এই ক্রান্তিলগ্নে জনগণকে পাশে নিয়ে নতুন উদ্যমে পথ চলা শুরুর অঙ্গীকার করছি আমরা।’

উল্লেখ্য, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেন উপস্থিত না থাকায় গত ১০ জুন কোনও সিদ্ধান্ত ছাড়াই ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির সভা মুলতবি করা হয়। এরপর এক মাস পেরিয়ে গেলেও মুলতবি সভা আর আয়োজন করা হয়নি। কাদের সিদ্দিকীর দাবি, বাস্তবায়নের কোনও উদ্যোগও নেওয়া হয়নি। এতে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের নেতাকর্মীদের ক্ষোভ বেড়েছে। ঐক্যফ্রন্টের এমন কর্মকাণ্ডে তাদের নেতা কাদের সিদ্দিকীকে অবজ্ঞা করা হয়েছে বলেই মনে করেন তারা। এমন প্রেক্ষাপটেই গত বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) দলের বর্ধিত সভায় ঐক্যফ্রন্ট ছাড়ার দাবি তুলেন দলের নেতাকর্মীরা।

এর আগেও নির্বাচন পরবর্তী ঐক্যফ্রন্টের নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগে তুলে জোট ছাড়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন কাদের সিদ্দিকী।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech