দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে, এখন ঘুরে দাঁড়াতে হবে: ফখরুল

  

পিএনএস ডেস্ক : সরকারের ‘মামলা-হামলায়’ বিএনপি নেতাকর্মীদের ‘দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে’ মন্তব্য করে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ঘুরে দাঁড়ানোর ডাক দিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, সরকার বিচার বিভাগের স্বাধীনতাকে হরণ করেছেন। সরকারের মামলা-হামলায় বিএনপির নেতা-কর্মীরা জর্জরিত। অনেক নেতাকর্মী এখন বাড়ি থাকতে পারছে না। তারা ঢাকায় রিকশা চালাচ্ছে, হকারি করছে।

‘দলের ২৬ লাখ নেতাকর্মী মামলার আসামি। ১ হাজারের উপরে গুম হয়েছে। নিহত হয়েছে ২-৩ হাজার। আমরা খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য সব দিকে চেষ্টা করেছি। দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে। অবশ্যই এখন ঘুরে দাঁড়াতে হবে’।

মির্জা ফখরুল বলেন, জনগণ ভোট দিতে পারলে নৌকা ভোট পাবে না। বর্তমান নির্বাচন কমিশন পক্ষপাতিত্ব করেছে। অবিলম্বে নতুন কমিশন গঠন করুন। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিন। বিরোধী দলগুলোকে ডেকে একটি পথ বের করুন’।

বৃহস্পতিবার বিকেলে বিএনপির বরিশাল বিভাগীয় সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব বলেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিকেল ৩টায় বরিশাল নগরের হেমায়েত উদ্দিন কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে দলের যুগ্ম মহাসচিব ও মহানগর সভাপতি মজিবর রহমান সরোয়ারের সভাপতিত্বে বিভাগীয় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বক্তব্য রাখেন সন্ধ্যা সোয়া ৬টায়।

মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে একদলীয় শাসন কায়েম করেছে। বাজেটে জনগণের পকেট কেটেছে। ট্যাক্স বৃদ্ধি, বিদ্যুৎ-গ্যাসের দাম বৃদ্ধি, এমনকি পেঁয়াজ, কাচামরিচের দামও আকাশচুম্বী হয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, দেশে ধর্ষণ, আদালতে হত্যার মতো ঘটনা ঘটছে। অন্যদিকে আওয়ামী লীগ বড় প্রকল্প করে তাদের উন্নয়ন ঘটাচ্ছে।

বিএনপি মহাসচিব দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, এই অবস্থা থেকে উত্তরণ ঘটাতে গ্রামে-গ্রামে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করুন। খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আন্দোলনের প্রস্তুতি নিন। খালেদা জিয়াকে মুক্তি না দিলে সরকারও মুক্তি পাবে না।

বিভাগীয় সমাবেশের সভাপতির বক্তব্যে মজিবর রহমান সরোয়ার বলেন, খালেদা জিয়াকে মুক্তি না দিলে বরিশালবাসী আন্দোলনের জন্য প্রস্তুত রয়েছে। বরিশাল থেকেই খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন শুরু হলো।

তিনি বলেন, তবে আন্দোলনের পদ্ধতি পরিবর্তন করতে হবে। মান্ধাতা আমলের মানববন্ধন, সমাবেশ দিয়ে চেয়ারপারসনকে মুক্ত করা যাবে না। আমাদের কঠিন কর্মসূচিতে নামতে হবে।

দলের নবনিযুক্ত স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান সমাবেশে বলেন, বরিশালবাসী হারতে জানে না, সংগ্রাম করতে জানে। আন্দোলন শুরু হলে সরকার পালানোর পথ পাবে না।

স্থায়ী কমিটির অপর সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু বলেন, এ সরকার জনগণের অধিকার হরণ করছে। অধিকার আদায়ের জন্য সবাইকে দুর্বার আন্দোলনের জন্য জেগে উঠতে হবে।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় সহসভাপতি ব্যারিস্টার শাজাহান ওমর (বীর উত্তম), মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম, এয়ার ভাইস মার্শাল (অব.) অলতাফ মাহমুদ চৌধুরী, অ্যাড. জয়নাল আবেদীন, কেন্দ্রীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন, কেন্দ্রীয় নেতা এবিএম মোশারফ হোসেন, সহসাংগঠনিক সম্পাদক আকন কুদ্দুসর রহমান, মাহবুবুল হক নান্নু, দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি এবায়দুল হক চান, উত্তর জেলা বিএনপির সভাপতি মেজবাউদ্দিন ফরহাদ, কেন্দ্রীয় নেতা হাফিজ ইব্রাহিম, সাবেক এমপি আবুল হোসেন, গাজী কামরুল ইসলাম সজল, ছাত্রনেতা হাসান মামুন, হায়দার আলী লেলিন প্রমুখ।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech