সেনাবাহিনী সুনাম অক্ষুণ্ন রেখেই কাজ করবে

  


পিএনএস ডেস্ক: দেশের ভেতরে ও আন্তর্জাতিক পরিসরে দক্ষতার কারণে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অগাধ সুনাম রয়েছে। তারা দেশে ও বিদেশে বিভিন্ন পরিস্থিতিতে নির্বাচনের সময় আস্থা ও দক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছে। এসব কারণে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ওপর দেশের মানুষেরও বিশ্বাস ও আস্থা আছে। মানুষ আশা করছে, সেনাবাহিনী অতীতের সুনাম অক্ষুণ্ন রেখে এবারও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করবে। তারা দায়িত্ব পালন করবে নিরপেক্ষভাবে, যাতে বাংলাদেশে একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে পারে। অবাধ ও সুষ্ঠু এই নির্বাচনের ওপর বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ নির্ভর করছে।

এটাও অবশ্য মনে রাখতে হবে যে সেনাবাহিনীকে মাঠে নিয়োগের ক্ষেত্রে তাদের দায়িত্ব কী হবে, সেটা খুব স্পষ্টভাবে সরকারের পক্ষ থেকে নির্ধারণ করে দেওয়া হয়। তাই সেনাবাহিনীকে যে দায়িত্ব বা টার্মস অব রেফারেন্স দেওয়া হয়েছে, মাঠপর্যায়ে তারা সেভাবেই তাদের দায়িত্ব পালন করবে।

৩০ ডিসেম্বরের জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে দেশের মানুষ আশা করছে, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর যে ঐতিহ্য আছে, সেটি সমুন্নত রেখে এই নির্বাচনেও তারা তাদের দায়িত্ব সুষ্ঠুভাবে পালন করবে; আস্থা বজায় রেখে নিরপেক্ষভাবে দায়িত্ব পালন করবে, যাতে সব রাজনৈতিক দল সমানভাবে এই নির্বাচনে অংশ নিতে পারে, মানুষ নির্বিঘ্নে ভোটকেন্দ্রে যেতে পারে এবং নির্ভয়ে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারে।

আগেই বলেছি, বাংলাদেশের গণতন্ত্রের ভবিষ্যতের জন্য এই নির্বাচন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কাজেই সব পক্ষকেই এই লক্ষ্যে একাগ্রচিত্তে কাজ করতে হবে। এই গুরুদায়িত্ব কেবল সেনাবাহিনীর একার পক্ষে পালন করা কোনোভাবেই সম্ভব নয়। অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ নির্বাচনের সঙ্গে যুক্ত সব পক্ষকে তাই যার যার দায়িত্ব সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে পালন করতে হবে।

লেখক: মেজর জেনারেল (অব.) এ এন এম মুনিরুজ্জামান: বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব পিস অ্যান্ড সিকিউরিটিজ স্টাডিজের প্রেসিডেন্ট
* লেখাটিতে প্রকাশিত বক্তব্য লেখকের নিজস্ব (সূত্র: প্রথম আলো)

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech