যুবরাজের যে রেকর্ড এখনো ভাঙ্গা যায়নি!

  

পিএনএস ডেস্ক : ২০০৭ সালের মার্চ মাসে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথমবারের মতো ছয় বলে ছয় ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার মারকুটে ব্যাটসম্যান হার্শেল গিবস। নেদারল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে বিশ্বকাপে এই কীর্তি গড়েন গিবস। তার দেখাদেখি মাস ছয়ের পরে প্রথমবারের অনুষ্ঠেয় বিশ্ব টি-টোয়েন্টির আসরেও এক ওভারের ছয় বলে ছয় ছক্কা হাঁকানোর রেকর্ড গড়েন যুবরাজ।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সেবারই শেষবারের মতো হয়েছিল ছয় বলে ছয় ছক্কা। ওয়ানডে বিশ্বকাপে গিবস আগেই এই কীর্তি গড়ে ফেলায় এই রেকর্ডের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন যুবরাজ। তবে আজ থেকে ঠিক ১১ বছর আগে হওয়া, ১৯ সেপ্টেম্বর তারিখেই হওয়া সেই ম্যাচে যুবরাজ গড়েন আরও একটি রেকর্ড, যা অটুট রয়েছে এখনো।

ডারবানের কিংসমিডে সেদিন টসে জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন ভারতীয় অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। দুই ওপেনারের ব্যাটে চড়ে দারুণ সূচনা পায় ভারত। গৌতম গম্ভীর ৫৮ ও ভিরেন্দর শেবাগ করেন ৬৮ রান। উদ্বোধনী জুটিতে মাত্র ১৪.৪ ওভারে আসে ১৩৬ রান। ভারতের সামনে তখন বড় সংগ্রহের হাতছানি।

কিন্তু তিন নম্বরে নামা রবিন উথাপ্পা মেরে খেলতে ব্যর্থ হলে পরের দুই ওভারে ১৯ রান পায় ভারত। ইনিংসের ১৭তম ওভারের চতুর্থ বলে উথাপ্পার বিদায়ে উইকেটে আসেন যুবরাজ সিং। ইনিংসে তখন বাকি মাত্র ২০টি বল, দলের রান ১৫৫। পরের বিশটি বলের ১৬টি বল খেলেন যুবরাজ।

এই ১৬ বলেই রচিত হয় ইতিহাস। মুখোমুখি দ্বিতীয় বলে মারেন চার। পরের ওভারে হাঁকান আরো দুইটি বাউন্ডারি। ১৮ ওভারের ভারতের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৭১, যুবরাজ অপরাজিত ৬ বলে ১৪ রান নিয়ে। বোলিংয়ে আসেন তখনো পর্যন্ত ৩ ওভারে ২৪ রান খরচ করা ব্রড।

২১ বছর বয়সী ব্রড তখনো জানতেন কি তান্ডব হতে চলেছে তার বোলিংয়ে। ওভারের ছয় বলে পরপর ছয়টি ছক্কা মারেন যুবরাজ। প্রথম ছক্কা মারেন কাউ কর্নার সীমানা দিয়ে। দুর্দান্ত ফ্লিকে পরেরটা যায় ফাইন লিগে বাউন্ডারিতে। লাইন পরিবর্তন করে অফস্টাম্পের বাইরে করেন ব্রড, সে বলের ঠিকানা হয় এক্সট্রা কভার সীমানা।

বাধ্য হয়ে রাউন্ড দ্যা উইকেটে যান ব্রড, কিন্তু হারিয়ে ফেলেন লেন্থ। অফস্টাম্পের অনেক বাইরে করা ফুলটস ডেলিভারিটি অবলীলায় স্কয়ার অব দ্যা উইকেটে ছক্কা মারেন যুবরাজ। আবারও ওভার দ্য উইকেটে ফেরেন ব্রড। এবার বলের ঠিকানা হয় আকাশ ছুঁয়ে ডিপ মিড উইকেট বাউন্ডারি। শেষ বলে বেশ আয়েশি ভঙ্গিমায় লং লেগ অঞ্চল দিয়ে সীমানা ছাড়া করেন যুবরাজ।

তিন ওভারে ২৪ রান নিয়ে ওভার শুরু ব্রডের স্পেল শেষ হয় ৪ ওভারে ৬০ রান খরচায়। আর ৬ বলে ১৪ রান নিয়ে শুরু করা যুবরাজের অর্ধশত পূর্ণ হয় মাত্র ১২ বলেই। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার চেয়ে কম বলের ফিফটি হয়নি এখনো। এমনকি সবধরনের টি-টোয়েন্টি মিলিয়েও নেই এর চেয়ে কম বলের ফিফটি।

২০১৬ সালের বিগ ব্যাশ টি-টোয়েন্টি লিগে ঠিক ১২ বলেই ফিফটি হাঁকিয়ে যুবরাজের পাশে বসেছেন ক্রিস গেইল। কিন্তু যুবরাজের সেই ছয় বলে ছয় ছক্কার ম্যাচে করা ১২ বলের ফিফটির রেকর্ডকে নিচে নামাতে পারেননি টি-টোয়েন্টির এ ফেরিওয়ালা, পারেননি বিশ্বের অন্য কোনো ব্যাটসম্যানও।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech