ভায়রা-ভাই 'সুপার' লড়াইয়ে জয় মুশফিকের

  

পিএনএস ডেস্ক : মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ বিপিএলের সুপার লড়াই দেখল দর্শকরা। খুলনার বিপক্ষে ইনিংসের শেষ বলে জয়ের কাছাকাছি এসেও জিততে পারেনি চিটাগং ভাইকিংস। টাই হওয়া ম্যাচ গড়ায় সুপার ওভারে। সেই সুপার ওভারের টান টান উত্তেজনার ম্যাচে মাহমুদউল্লাহর দলকে ১ রানে হারিয়ে দেয় তার ভায়রা ভাই মুশফিকুর রহিমের দল। এই জয়ে দুই ম্যাচে জয় হলো চিটাগংয়ের। অন্যদিকে চার ম্যাচে জয়বঞ্চিত রইল খুলনা টাইটান্স।

খুলনার দেওয়া ১৫১ রানের জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে সতর্ক শুরু করে চিটাগং ভাইকিংস। কিন্তু দলীয় ১২ রানেই জুনায়েদ খানের বলে মোহাম্মদ শেহজাদের (১০) ক্যাচ দুর্দান্তভাবে তালুবন্দি করেন স্টার্লিং। অপর ওপেনার ডেলপোর্ট (১৭) শিকার হন তাইজুলের। এরপর অধিনায়ক মুশফিক আর ইয়াসির আলী প্রতিরোধ গড়েন। ৩৪ বলে ৪১ করা ইয়াসির শরিফুলের শিকার হলে ভাঙে ৩৫ রানের জুটি।

সিকান্দার রাজা এসেই ৪ বল খেলে কোনো রান না করেই ব্র্যাথওয়েটের বলে বোল্ড হয়ে যান। তখন হাত খুলতে শুরু করেন অধিনায়ক মুশফিক। তাকে বেশিক্ষণ সঙ্গ দিতে পারেননি মোসাদ্দেক। ১২ রানে আউট হয়েছেন শরিফুলের বলে। ২৬ বলে ১ চার ২ ছক্কায় ৩৪ করা মুশফিক ব্র্যাথওয়েটের বলে ধরা পড়েন শরিফুলের হাতে। শেষ ওভারে দরকার ছিল ১৯ রান। বোলার আরিফুল। ওভারের দ্বিতীয় বলে ছক্কা মেরে পরের বলেই ক্যাচ দেন নাঈম (৮)।

আরিফুলের সেই ওভারের চতুর্থ এবং পঞ্চম বলে দুই ছক্কায় স্কোর লেভেল করেন ফ্র্যালিংক। শেষ বলে সবচেয়ে বড় নাটক অপেক্ষা করে ছিল। বলটি ব্যাটেই ছোঁয়াতে পারেননি ফ্র্যালিংক! উইকেটের পেছনে বল রেখেই রান নিতে ছোটেন তিনি। তবে বিপরীত প্রান্ত ছোঁয়ার আগেই স্টাম্প ভেঙে দেন মাহমুদউল্লাহ। শেষ হয় তার ১৩ বলে ২৩ রানের ক্যামিও ইনিংস। ম্যাচ টাই! শেষ পর্যন্ত ম্যাচ গড়ায় সুপার ওভারে। ৬ বলে ১ উইকেটে ১১ রান তোলে চিটাগং। ১২ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে ১০ রানেই থামতে হয় খুলনাকে। ১ রানের দুর্দান্ত জয় ছিনিয়ে নেয় চিটাগং।

এর আগে আজ শনিবার দিনের প্রথম ম্যাচে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৫১ রান তোলে খুলনা টাইটান্স। ব্যাটিংয়ে নেমে দলকে ভালো শুরু এনে দেন স্টারলিং এবং জুনায়েদ সিদ্দিকী। তবে ১০ বলে ১৮ করা স্টার্লিং নাঈম হাসানের শিকার হলে ভাঙে ৩১ রানের জুটি। জুনায়েদ সিদ্দিকীও বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। ১৫ বলে ২০ রান করে ফ্র্যালিংকের বলে ধরা পড়েন মোসাদ্দেকের হাতে। এরপর অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ এবং ডেভিড মালান দারুণ এক জুটি গড়েন।

৭৭ রানের অতি প্রয়োজনীয় সেই জুটি ভাঙে আবু জায়েদের বলে ৪৩ বলে ৪৫ করা ডেভিড মালান সিকান্দার রাজার হাতে ধরা পড়লে। ৫ বলে ১ চার ১ ছক্কায় ১২ রান করেন ব্র্যাথওয়েট। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ৩১ বলে ৩৩ রান করে সানজামুল ইসলামের শিকার হন। নাজমুল হোসেন শান্তকে (৬) খালেদ আহমেদ আউট করলে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৫১ রান তোলে খুলনা টাইটান্স। সানজামুল নিয়েছেন ২ উইকেট। ১টি করে নিয়েছেন ফ্র্যালিংক, নাঈম, খালেদ এবং আবু জায়েদ।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech