শ্রীলঙ্কা সফরে কোচ খালেদ মাহমুদ

  

পিএনএস ডেস্ক : স্টিভ রোডস চলে যাওয়ার পর বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের কোচের পদ আপাতত শূন্য। আসছে শ্রীলঙ্কা সফরে অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে খালেদ মাহমুদ যাবেন—এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন বিসিবির ক্রিকেট অপারেশনস কমিটির প্রধান আকরাম খান।

স্টিভ রোডসের বিদায়ের পর শূন্য হয়ে পড়া দলের প্রধান কোচের জায়গাটা যে শ্রীলঙ্কা সফরের আগে পূরণ হচ্ছে না, এটি মোটামুটি নিশ্চিত। অল্প সময়ের মধ্যে নতুন কোচ বিদেশি কোচ নিয়োগ দেওয়া ভীষণ কঠিন। তবে অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে এ সফরে একজনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। সেই ‘একজন’ যে খালেদ মাহমুদ, সেই ইঙ্গিত দিয়েছেন বিসিবি ক্রিকেট অপারেশনস প্রধান আকরাম খান। তবে এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসবে পরে।

আকরামের কথায় ইঙ্গিত থাকলেও মাহমুদের নিয়োগ এখনো চূড়ান্ত কিছু নয় বলেই জানিয়েছেন তিনি, ‘অন্তর্বর্তীকালীন কোচ সুজন কী না এটা আমরা দেখছি। দুই তিন দিন পর সিদ্ধান্ত জানাব। হেড কোচের ব্যাপারে সংকট আছে। আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। আপাতত সুজনকে (খালেদ মাহমুদ) দিয়ে আমরা চালিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছি। এর মধ্যে অন্য কোচ দেখব আমরা।’

তবে মাহমুদকে অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হলেও তিনি দায়িত্ব গ্রহণ করবেন, তাও নিশ্চিত নয়। কারণ মাহমুদ আগেই জানিয়েছেন অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হতে রাজি নন তিনি।

বিশ্বকাপের পরে শুধু প্রধান কোচ নয়, পুরো কোচিং স্টাফেই রদ বদল এসেছে। ছেটে ফেলা হয়েছে পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশকে। ব্যাটিং কোচ নিল ম্যাকেঞ্জির সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ বাড়ানোর ব্যাপার বিসিবির আগ্রহ থাকলেও দক্ষিণ আফ্রিকান এই ব্যাটিং কোচকে শ্রীলঙ্কায় পাওয়া নিয়ে সন্দেহ আছে। তবে দুজনের বিকল্পই চূড়ান্ত করে রেখেছে বিসিবি, ‘আমাদের বিকল্প আছে। চাম্পাকা রামানায়েকেও কিন্তু খুব ভালো বোলিং কোচ। তাঁকে আপাতত এই সিরিজে নিয়ে যাব আমরা। ম্যাকেঞ্জি যদি সময় দিতে না পারে তাহলে জাফরকে (ওয়াসিম) আমরা নিয়ে যাচ্ছি।’

শ্রীলঙ্কার সাবেক ক্রিকেটার রামানায়েকে বর্তমানে হাই পারফরমেন্স স্কোয়াডের দায়িত্বে আছেন। আর ভারতের ওয়াসিম জাফরকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে গেম ডেভেলপমেন্টের। তবে বিশ্বকাপ শেষ করে জাতীয় দল ঢাকা আসার পর তামিম ইকবালের সঙ্গে ইতিমধ্যে কাজ শুরু করে দিয়েছেন ভারতের সাবেক এই টেস্ট ক্রিকেটার।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech