কাশ্মীরের পাশে দাঁড়ালেন সরফরাজ-শোয়েব

  


পিএনএস ডেস্ক: কাশ্মীর নিয়ে সব সময়ই সোচ্চার ভারত এবং পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা। কেউ পক্ষে, কেউ বিপক্ষে। স্বাভাবতই কাশ্মীরি জনগনের পক্ষে অবস্থান নেন পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা। আর ভারতের ক্রিকেটাররা পক্ষ নেন তাদের দেশের সরকার এবং সেনাবাহিনীর। এবারও যেমন কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে ৩৭০ ধারা এবং ৩৫-এ উপধারা রহিত করার ঘোষণা দিল ভারত সরকার, তখন এর পক্ষে-বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে দু’দেশের ক্রিকেটাররা।

ভারতীয় ক্রিকেটার মহেন্দ্র সিং ধোনি তো ভারতীয় সেনাবাহিনীর অংশীদার হয়ে কাশ্মীরেই অবস্থান করছেন এবং কারফিউ জারিতে ভুমিকা রাখছেন। ভারতের সাবেক এবং বর্তমান ক্রিকেটাররা এ সম্পর্কে ভারতীয় সরকারের পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছেন। অন্যদিকে পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা পক্ষ নিচ্ছেন কাশ্মীরি জনগনের। তাদের স্বাধীনতার দাবি তুলছেন তারা।

পাকিস্তানের বর্তমান অধিনায়ক সরফরাজ আহদেম কাশ্মীরি জনগনের পাশে থাকার ঘোষণা দিয়ে বলেন, ‘গোটা পাকিস্তান কাশ্মীরি ভাইদের পাশে আছে। কাশ্মীরিদের দুঃখ-দুর্দশা আমরা যেন একসঙ্গে ভাগ করে নিতে পারি। আর এই কঠিন পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে সর্বশক্তিমান আল্লাহ যেন তাঁদের সাহায্য করেন, সেই প্রার্থনাই করি।’

এর আগে জম্মু এবং কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল ও ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বিলোপের পরই টুইট করে এই সিদ্ধান্তের কঠোর সমালোচনা করেন সাবেক পাকিস্তানি অধিনায়ক শাহিদ আফ্রিদি। বিনা প্ররোচনায় কাশ্মীরে মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে বলে উল্লেখ করেন আফ্রিদি। জাতিসংঘের নীরবতা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন পাকিস্তানের এই সাবেক অধিনায়ক। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বিষয়টি তুলে ধরার আহ্বান জানান তিনি।

আফ্রিদির কথার জবাবে পাল্টা টুইট করেন ভারতের সাবেক ক্রিকেটার এবং বর্তমান সাংসদ গৌতম গম্ভীর। আফ্রিদিকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি তিনি।

শাহিদ আফ্রিদির পরে কাশ্মীর প্রসঙ্গে এ বারে মুখ খুললেন বর্তমান পাক অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ এবং সাবেক স্পিডস্টার শোয়েব আখতারও। ঈদ মুবারক জানিয়ে কাশ্মীরিদের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দেন সাবেক এই পাক পেসার।

সোমবার কাশ্মীর নিয়ে ভারত সরকারের সমালোচনা করে টুইটারে এক চোখে ব্যান্ডেজ দেওয়া একটি শিশুর ছবি পোস্ট করেছেন শোয়েব আখতার। ছবির ক্যাপশন হিসেবে শোয়েব লেখেন,‘We stand by your side..., EID Mubarak’. শিশুটির বুকে উপর লেখা..‘You define sacrifice. We pray for your freedom and what a great purpose to live for. #Kashmir.’

পিএনএস/ হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech