পাকিস্তানের মাটিতে টেস্ট খেলতে যাবে শ্রীলঙ্কা!

  

পিএনএস ডেস্ক: প্রায় ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে টেস্টের বল গড়াচ্ছে না পাকিস্তানের কোনো স্টেডিয়ামে। যদিও গত দুই-তিন বছরে কয়েকটি টি-টোয়েন্টি এবং ওয়ানডে ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে সেখানে।

মোটা দাগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ আয়োজন এখনও প্রায় বন্ধ রয়েছে দেশটিতে।

২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলংকান ক্রিকেটারদের ওপর নারকীয় হামলার পর থেকে দেশটিতে আর খেলতে যাচ্ছে না কেউ।

আবারও সাদা জার্সিতে সেই শ্রীলংকাকেই দেখা যেতে পারে পাকিস্তানের মাঠে। সেখানে টেস্ট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

অবাক করার মতো বিষয় হলো- ১০ বছর পর পাকিস্তানে গিয়ে টেস্ট খেলতে যাচ্ছে সেই শ্রীলংকাই।

ইএসপিএন ক্রিকইনফো জানাচ্ছে, বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যে দুই দেশ অনেকখানি এগিয়েও গেছে। চলতি বছরের শেষ দিকেই পাকিস্তান সফরে যেতে পারে শ্রীলংকা।

জানা গেছে, প্রস্তাবটি এসেছে পিসিবির পক্ষ থেকেই। অন্তত সিরিজের একটি ম্যাচ হলেও তাদের মাটিতে গিয়ে খেলার জন্য শ্রীলংকাকে প্রস্তাব দেয় পাকিস্তান।

সেই প্রস্তাবে সাড়া দিয়ে মোহন ডি সিলভার নেতৃত্বে শ্রীলংকার একটি নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ দল পাকিস্তান সফর করে এসেছে।

দেশে ফিরে লংকান ক্রিকেট বোর্ডে ইতিবাচক রিপোর্টও জমা দিয়েছেন তারা। যে কারণে পাকিস্তান সফরে যেতে আগ্রহ পোষণ করেছে লংকান ক্রিকেট বোর্ড।

অবশ্য সিরিজটি নিরপেক্ষ ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। তবে শ্রীলংকার প্রতি পাকিস্তানের অনুরোধ কমপক্ষে সিরিজের একটি ম্যাচ হলেও তাদের দেশে গিয়ে খেলতে।

ইএসপিএন ক্রিকইনফো লিখছে, গত শুক্রবার শ্রীলংকান ক্রিকেট বোর্ডে নিরাপত্তা রিপোর্ট পেশ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে লংকান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী অ্যাশলে ডি সিলভা বলেন, ‘নিরাপত্তা পর্যালোচনা করে আমরা যথেষ্ট ইতিবাচক ফিডব্যাক পেয়েছি। তবে এ বিষয়ে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে আরও আলাপ রয়েছে আমাদের। একই সঙ্গে সরকারি পর্যায়েও বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা হতে পারে। কারণ সব কিছুর ঊর্ধ্বে খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা।’

সে জন্য খেলোয়াড়দের মতামত আগে নেয়া জরুরি বলে মনে করেন অ্যাশলে ডি সিলভা।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের অক্টোবরে পাকিস্তানে গিয়ে একটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছিল শ্রীলংকা। সেই সময় দলের সঙ্গে যাননি নামকরা ক্রিকেটাররা।

তখন লংকানদের অধিনায়ক ছিলেন উপুল থারাঙ্গা। তিনি পাকিস্তান সফরে না যাওয়ায় থিসারা পেরেরাকে অধিনায়ক নির্বাচিত করে দলকে পাঠায় বোর্ড।

শুধু থারাঙ্গাই নয়, সেই ম্যাচ খেলতে পাকিস্তানে যাননি পেসার লাসিথ মালিঙ্গা, নিরোশান ডিকভেলা, সুরাঙ্গা লাকমাল ও আকিলা ধনঞ্জয়া।

নিরাপত্তার অজুহাত দেখিয়ে তারা প্রত্যেকেই নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন।

বিষয়টি বিবেচনা করেই শ্রীলংকা ক্রিকেট বোর্ড সব কিছুর আগে জানতে চাইছে, তাদের খেলোয়াড়রা এবার পাকিস্তান সফরে যেতে রাজি হবে কিনা।

তারা রাজি থাকলে হয়তো ১০ বছরের খরা ঘুচিয়ে টেস্টের বল গড়াবে লাহোর বা করাচির মাঠে।

পিএনএস/মো: শ্যামল ইসলাম রাসেল



 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech