‘জিম্বাবুয়ের মতো বাংলাদেশকেও নিষিদ্ধ করতে চেয়েছিল’

  

পিএনএস ডেস্ক : আগামী মাসে জাতীয় দলের ভারত সফর। তার আগে হুট করে গতকাল ক্রিকেটারদের ধর্মঘট ডাকাকে ষড়যন্ত্র বলে মনে করছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান। কাল দেশের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটারদের ধর্মঘট ডাকার পরিপ্রেক্ষিতে আজ সংবাদ সম্মেলন ডেকেছিলেন বিসিবি সভাপতি। সেখানে দীর্ঘদিন ধরেই বাংলাদেশের ক্রিকেটের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে, এ মন দাবি করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বেশ উত্তেজিত ছিলেন বিসিবি সভাপতি। পুরো বিষয়কে ষড়যন্ত্র বলে আখ্যায়িত করেছেন নাজমুল, ‘ক্রিকেটাররা এসব দাবি আমাদের কাছে করলেই আমরা তা মেনে নিতাম। কিন্তু আমাদের কাছে করল না। আমাদের কোনো সুযোগ না দিয়ে বয়কটের ঘোষণা দিল। এটি বড় কোনো ষড়যন্ত্রের অংশ বলে আমার কাছে মনে হচ্ছে।’

নাজমুল হাসানের মতে, এই ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে বেশ আগে থেকে। এমনকি আইসিসির কাছে অভিযোগ করে বাংলাদেশকে নিষিদ্ধ করারও নাকি চেষ্টা হয়েছিল বলে জানান তিনি, ‘বাংলাদেশ ক্রিকেটকে নড়বড়ে করে দেওয়ার জন্য ষড়যন্ত্র চলছে, এটা সবাই বুঝে, জানে। ওরা প্রথমে বিসিবি বা আমাদের আক্রমণ করে বা অন্য পরিচালকদের আক্রমণ করে (ক্যাসিনো–কাণ্ডে বিসিবির একজন পরিচালক গ্রেপ্তারের পরবর্তী ঘটনার দিকে ইঙ্গিত করে) বাইরে তথ্য পাঠানোর চেষ্টা করেছে। বহু চেষ্টা হয়েছে আইসিসির কাছ থেকে নিষেধাজ্ঞা আনার। জিম্বাবুয়ের মতো আমাদের বোর্ডকেও সাসপেন্ড করাতে চেয়েছে।’

সেটিতে সফল না হয়েই ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছে বলে মনে করেন বিসিবি সভাপতি, ‘সেটিতে সফল না হয়ে দ্বিতীয় ধাপে ক্রিকেটারদের ব্যবহার করছে। হ্যাঁ, ভারত সফরে যদি না যায়, তাহলে আইসিসি নিশ্চয় প্রতিক্রিয়া দেখাবে। আমাদের ভাবমূর্তি নষ্ট করায় ওরা তাই কিছুটা হলেও সফল হয়েছে।’

আর এর পেছনে কে কাজ করছে, তাঁকে খুঁজে বের করা হবে বলে জানিয়েছেন নাজমুল হাসান, ‘সব খেলোয়াড় এটি জেনেশুনে করছে, আমার তা মনে হয় না। এক-দুজন তেমন থাকতে পারেন। বাকিরা ব্যাপারটা না জেনেই করছে। দলের মধ্যে কেউ যদি থেকে থাকে, যে বাংলাদেশ ক্রিকেটকে ধ্বংস করে দিতে চাইছে, তাকে আমরা অবশ্যই খুঁজে বের করব। পুরো পরিকল্পনা জানে এক-দুজন। খুব শিগগির সব প্রকাশ করা হবে।’

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech