২২৯ হামলায় ৩৫৭ নিহতের দেশ সেই পাকিস্তানে ফিরছে ক্রিকেট!

  




পিএনএস ডেস্ক: নিরাপত্তার শঙ্কা নিয়েই অবশেষে পাকিস্তানে যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। পরিসংখ্যান বলছে, পাকিস্তানে সন্ত্রাসী হামলা আগের তুলনায় কমেছে। তারপরও যত হামলা হয়েছে এবং যত মানুষ হতাহত হয়েছে, জানলে আতঙ্কিত হতে হয়।

অবশেষে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের পাকিস্তান সফর
শেষ পর্যন্ত জাতীয় দলের পাকিস্তান সফরে সম্মতি দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। এ সফরে তিন দফায় তিনটি টি-টোয়েন্টি, একটি ওয়ানডে এবং দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ।

২৪ ,২৫ ও ২৭ জানুয়ারি লাহোরে তিনটি ম্যাচ খেলে দেশে ফিরবে টি-টোয়েন্টি দল। তারপর রাওয়ালপিন্ডিতে ৭ থেকে ১১ ফেব্রুয়ারি প্রথম টেস্ট। তারপর ৩ এপ্রিল করাচিতে হবে একমাত্র ওয়ানডে। দুদিন পর সেখানেই শুরু হবে দ্বিতীয় টেস্ট।

মৃত্যু কমেছে
২০১৮ সালের তুলনায় পাকিস্তানে জঙ্গি হামলায় নিহতের সংখ্যা শতকরা ৪০ ভাগ কমেছে।

তারপরও ভয়াবহ চিত্র
আগের বছরের চেয়ে কমলেও ২০১৯ সালে মোট ২২৯টি সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে পাকিস্তানে। এসব হামলায় ৩৫৭ জন নিহত ও অন্তত ৭২৯ জন আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে পিআইপিএস।

সবচেয়ে বড় আতঙ্ক যারা
পিআইপিএস-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, পাকিস্তানে ইসলামী জঙ্গি সংগঠন আইএস-এর দাপট দৃশ্যত বেশ কমেছে। তবে বেড়েছে তেহরিক-ই-তালিবান পাকিস্তান (টিটিপি) আর বালোচিস্তান লিবারেশন আর্মি (বিএলএ)-র হামলা। ২২৯টির মধ্যে সবচেয়ে বেশি ১৫৮টি হামলা চালিয়েছে টিটিপি ও তার সহযোগী জঙ্গি সংগঠন৷ তারপরই ছিল বিএলএ। মোট ৫৭টি হামলা চালায় তারা।

মরছে সবাই
২০১৯ সালের ২২৯টি হামলায় সামরিক বাহিনীর সদস্য এবং বেসামরিক নাগরিক প্রায় সমান হারে নিহত হয়েছে। নিহত ৩৫৭ জনের মধ্যে ১৬৪ জন বেসামরিক নাগরিক, ১৬৩ জন নিরাপত্তা কর্মী আর বাকি ৩০ জন জঙ্গি।

বড় টার্গেট নিরাপত্তা ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থা
পিআইপিএস-এর প্রতিবেদন আরো জানাচ্ছে, ২০১৯ সালের মোট হামলার শতকরা ৫২ ভাগই হয়েছে নিরাপত্তা ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থায়। ২২৯টি হামলার মধ্যে ১১৮টিই হয়েছে এসব জায়গায়।

যেখানে সবচেয়ে বেশি হামলা
সবচেয়ে বেশি সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে খাইবার পাখতুনে। সেই অঞ্চলে মোট ১২৫টি হামলায় ১৪৫ জন নিহত ও ২৪৯ জন আহত হয়৷দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫০টি হামলা হয় উত্তর ওয়াজিরিস্তানে।

সবচেয়ে বেশি মৃত্যু যেখানে
২০১৯ সালে সন্ত্রাসী হামলায় সবচেয়ে বেশি ১৭১ জন নিহত হয় বালোচিস্তানে।

যেসব স্থানে খেলবে বাংলাদেশ
এ সফরে লাহোরে তিনটি টি-টোয়েন্টি আর রাওয়ালপিন্ডিতে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ। লাহোর আর রাওয়ালপিন্ডি পাঞ্জাব প্রদেশে৷২০১৯ সালে মোট ৫টি সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে এই প্রদেশে৷সফরের শেষ ধাপে করাচিতে একটি করে ওয়ানডে এবং টেস্ট ম্যাচ হবে। ২০১৯ সালে এই শহরে হয়েছে ১০টি হামলা। সূত্র: ডয়েচে ভেলে

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন