‘লাল পাসপোর্ট নিইনি, বাড়ি নিইনি, গাড়ি নিইনি’

  

পিএনএস ডেস্ক : বাংলাদেশে ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা নিয়ে প্রশ্ন চলে না। ক্রিকেটে জাতীয় দলের অধিনায়ক তাই অনেক বড় পদ। দেশের সর্বোচ্চ পর্যায়ের লোকের মর্যাদা পেয়ে থাকেন অধিনায়কেরা। দীর্ঘ সময় নেতৃত্ব দিলে এই মর্যাদার মোহে পড়া অস্বাভাবিক কিছু না। কিন্তু মাশরাফি বিন মুর্তজা সে ধাতের মানুষ নন। জাতীয় দলের নেতৃত্ব ছাড়ার সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফি বুঝিয়ে দিলেন, এসব বিষয় তাঁকে স্পর্শ করে না।

মাশরাফি শুধু ক্রিকেট দলের নেতা নন জাতীয় সংসদের সদস্যও। কিন্তু এসব ক্ষমতার মোহ থেকে দূরে থাকতেই পছন্দ করেন তিনি। ‘অধিনায়কত্ব মিস করবেন কি না’—কাল সংবাদ সম্মেলনে এমন প্রশ্নে মাশরাফি বলেন, ‘অধিনায়কত্ব শুরুর সময়ও মনে করিনি আমি অনেক বড় কিছু। এখন আমার আরেকটা পরিচয় আছে, এমপি; এখনো ও রকম (নিজেকে বড় কিছু) ভাবি না। লাল পাসপোর্ট নিইনি, বাড়ি নিইনি, গাড়ি নিইনি। অধিনায়ক হিসেবে আমি এই চেয়ারটা (প্রেস কনফারেন্সের চেয়ার দেখিয়ে) পাওয়ার আগ পর্যন্ত চেয়ারটা পাওয়ার আকাঙ্ক্ষা ছিল।’


কোনো দায়িত্ব পেলে মাশরাফি সব সময়ই তার প্রয়োগ ঘটাতে চান। কিন্তু দায়িত্বের গণ্ডির বাইরে ক্ষমতার প্রভাব খাটানোর কথা তিনি ভাবেননি। নিজের কথাতেই তা বুঝিয়ে দেন মাশরাফি, ‘যখনই আমি এই চেয়ারটা পেলাম তখনই ওখানে (আকাঙ্খার) শেষ লেখা হয়েছে। এই চেয়ার পাওয়ার আকাঙ্খা আমার কাছে নাই। এই চেয়ারটার সর্বোচ্চ প্রয়োগ আমার করা উচিত। বরং এটার প্রভাবটা আমি অন্যভাবে খাটাতে চাই না। আমি জিনিসটা এভাবে দেখি, যে জিনিসটা আমি অর্জন করব বা অর্জন করতে যাচ্ছি। তা পাওয়ার পর ওটার মূল্য আর নাই। তখন সেটার মূল্যায়ন হবে আমি কীভাবে এটার প্রয়োগ করেছি।’

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন