করোনাআক্রান্ত হাফিজকে যে পরামর্শ দিলেন শোয়েব আখতার

  

পিএনএস ডেস্ক : ইংল্যান্ড সফরের ২৯ সদস্যের দলে তিনিও ছিলেন। কিন্তু ইংল্যান্ড সফরের প্রাক্কালে পিসিবি কর্তৃক আয়োজিত করোনাভাইরাস টেস্টে পজিটিভ রিপোর্ট আসে মোহাম্মদ হাফিজসহ মোট ১০ ক্রিকেটারের; কিন্তু পিসিবির সেই টেস্টকে বিশ্বাস করতে পারেননি মোহাম্মদ হাফিজ। পরদিনই তিনি আবার টেস্ট করান ব্যক্তিগত উদ্যোগে। দেখা গেলো, তার রিপোর্ট নেগেটিভ। একই সঙ্গে তিনি কোয়ারেন্টাইনে থাকতেও অস্বীকৃতি জানান।

পিসিবি (পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড) মোহাম্মদ হাফিজের ব্যক্তিগত টেস্ট করানোটাকে মোটেও ভালোভাবে নেয়নি। শুধু তাই নয়, হাফিজের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ আনারও হুমকি দিয়েছিল।

শুক্রবার দ্বিতীয় টেস্ট করা হয় প্রথম টেস্টে পজিটিভ আসা ১০ ক্রিকেটারের। সেই টেস্টে হাফিজসহ মোট ৬ জনের করোনা নেগেটিভ আসলো। তাতেও কিন্তু লাভ হলো না। সেই ১০ ক্রিকেটারকে ছাড়াই আজ ইংল্যান্ডের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট দল।

যদি প্রথম টেস্টে মোহাম্মদ হাফিজের রিপোর্ট উল্টা-পাল্টা না আসতো, তাহলে হয়তো আজও তিনি ইংল্যান্ডগামী বিমানে উঠতে পারতেন। উল্টো নিজে টেস্ট করানোর কারণে পিসিবির রোশানলে পড়তে হয়েছে তাকে। এ কারণে মোহাম্মদ হাফিজকে পিসিবির মুখোমুখি হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক স্পিড স্টার শোয়েব আখতার।

এক ইউটিউব চ্যানেলে শোয়েব আখতার বলেন, ‘পিসিবি খুবই অব্যবস্থাপনার পরিচয় দিয়েছে। আমরা খেলোয়াড়দের টেস্ট করা শুরু করেছি। এরপর দেখা গেলো আমাদের ক্রিকেটাররা করোনা পজিটিভ। পাকিস্তানে সম্ভবত লাহোর, করাচিতে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা এখন করোনা সংক্রমণের। আমি নিশ্চিত, আপনি যদি টেস্ট করা অব্যাহত রাখেন, তাহলে আরও অনেক বেশি পজিটিভ রেজাল্ট পাবেন।’

হাফিজকে এ নিয়ে পরামর্শ দিয়ে শোয়েব আখতার বলেন, ‘টেস্ট তো করা হয়ে গেছে। আমার পরামর্শ হলো, হাফিজ তার রি টেস্টে ফল টুইটারে পোস্ট না করে সেটা নিয়ে পিসিবির মুখোমুখি হতো। আপনার উচিৎ নয়, এ নিয়ে বোর্ডের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ করার। ইংল্যান্ডে পাকিস্তাসের সফরটা খুবই জরুরি। আমাদের প্রয়োজন হলো, সেখানে নিখুঁত টিমটা পাঠানো। কারণ, আমরা চাই টেস্ট সিরিজটা জিততে।’

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন