ভুয়া খবর ঠেকাতে বিশেষজ্ঞ নিয়োগ দিচ্ছে ফেসবুক!

  

পিএনএস ডেস্ক : ফেসবুকে বিদ্বেষপূর্ণ মন্তব্য আর ভুয়া খবরের কারণে সহিংসতা ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তাই এ প্ল্যাটফর্মে ভুয়া খবর ঠেকাতে সংবাদ গ্রহণযোগ্যতার ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞ নিয়োগ দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে ফেসবুক।

ফেসবুকের ‘নিউজ ক্রেডিটিবিলিটি প্রোগ্রাম’-এর জন্য কমপক্ষে দুজন বিশেষজ্ঞ খুঁজছে প্রতিষ্ঠানটি। গত বৃহস্পতিবার ফরচুন অনলাইনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, স্প্যানিশ ভাষা ভালোভাবে জানেন—এমন ব্যক্তি অগ্রাধিকার পাবেন।

বিজনেস ইনসাইডারে প্রথম চাকরির ওই বিজ্ঞপ্তি নিয়ে খবর প্রকাশিত হয়। তাতে বলা হয়, ফেসবুক এমন কর্মী খুঁজছে, যিনি পুনরাবৃত্তিমূলক কাজগুলো ভালোভাবে করতে পারেন এবং স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভালো ফল দেখাতে সক্ষম। লিংকডইনেও যুক্তরাষ্ট্রের মেনলো পার্কের একটি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে এ ধরনের চাকরির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। তবে প্রতিষ্ঠানের নাম প্রকাশ করা হয়নি। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নির্বাচিত ব্যক্তিকে নিউজ ক্রেডিটিবিলিটি প্রোগ্রামে দক্ষতা আনতে হবে এবং সংবাদ প্রকাশকদের মূল্যায়ন করতে হবে।

ভুয়া খবর ছড়ানো ঠেকাতে গত মাসে ফেসবুক তিন ধরনের পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করার কথা বলেছিল। এর মধ্যে নীতিমালা না মানা অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া, অসত্য খবরের ছড়িয়ে পড়া ঠেকানো ও পোস্টের প্রেক্ষাপট সম্পর্কে ব্যবহারকারীকে জানানোর মতো পদক্ষেপ রয়েছে।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ ভূমিকা রাখায় বর্তমানে সমালোচনার মুখে পড়েছে ফেসবুক।

মিয়ানমারে ঘৃণা ছড়ানোর জন্য ফেসবুককে ব্যবহার করা হয়েছিল বলেও অভিযোগ উঠেছে। মিয়ানমারে জাতিগত নিধনে ফেসবুকের ব্যবহৃত হওয়ার অভিযোগ স্বীকারও করেছেন প্রতিষ্ঠানের উদ্যোক্তা ও প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ। মার্কিন সংবাদমাধ্যম ভক্সকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি স্বীকার করেছেন, খবরের নামে গুজব ছড়ানোর মধ্য দিয়ে মুসলিম ও রোহিঙ্গাবিদ্বেষী মনোভাবে উসকানির কাজে ফেসবুককে ব্যবহার করা হয়েছে। জাকারবার্গ স্বীকার করেছেন, ‘ভুয়া খবরগুলো’কে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের উপায় হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech