মনের কথা বলতে পারবেন বাকশক্তিহীনেরা

  

পিএনএস ডেস্ক : যাদের মুখে কথা বলার সক্ষমতা নেই, তাদের যাবতীয় চিন্তা-চেতনা মস্তিস্কে জমা হতে থাকে। বিশেষ করে পক্ষাঘাতগ্রস্ত বা স্নায়ু রোগের কারণে অনেকে মুখ দিয়ে কথা বলার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেন। এসব রোগীদের জন্য সুখবর আসছে। তারাও মনের ভাব প্রকাশ করতে পারবেন এখন থেকে।

তবে সেটি মুখ দিয়ে নয়। তাদের যাবতীয় চিন্তা ও কথা তারা যা চিন্তা করেন বা বলতে চান তা প্রকাশ করতে পারবেন যন্ত্রের মাধ্যমে। যুক্তরাষ্ট্রের কলাম্বিয়া ইউনিভার্সিটি ও নর্থওয়েল হেলথের বিজ্ঞানীরা সেই বিশেষ যন্ত্র উদ্ভাবন প্রায় শেষ করে ফেলেছে।

বিজ্ঞানীদের দলটি দাবি করছে, যন্ত্রটির মাধ্যমে মস্তিষ্ককে একটি ইলেকট্রোডসের সঙ্গে জুড়ে ভেতরের তরঙ্গ শনাক্ত করা যাবে। আর কথা বলার সময় মস্তিষ্কে খেলা করা সূক্ষ্ম তরঙ্গ শনাক্ত করে যন্ত্রটি তা সরল ভাষায় রূপান্তরিত করবে।

আর এই পুরো গবেষণায় সর্বকালের জগৎসেরা শ্রেষ্ঠ পদার্থবিদ প্রয়াত স্টিফেন হকিংকে আদর্শ হিসেবে নিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। বিরল স্নায়ু রোগে আক্রান্ত হকিং ৩০ বছর কথা বলতে পারেননি। হুইলচেয়ারের সঙ্গে যুক্ত কম্পিউটার প্রোগ্রামের মাধ্যমে তার চিন্তাগুলো কথার মতো করে বের হতো। হাতে রাখা যন্ত্রে ক্লিক করে হকিং কম্পিউটারের স্ক্রিনে নিজের কথা লিখে লিখে বোঝাতেন।

কলম্বিয়া ইউনিভার্সিটি ও নর্থওয়েল হেলথের নিউরোসায়েন্টিস্ট ও প্রকৌশলীরা জানিয়েছেন, সম্প্রতি তারা মানুষের মস্তিষ্কের পূর্ণ মানচিত্র তৈরি করতে পেরেছেন। যে অংশ কথা বলার কাজে ব্যবহৃত হয় তার নিউরনের সবকিছু ভালোভাবে শনাক্ত হয়েছে।

তাই তাদের বিশ্বাস যে যারা স্বরযন্ত্র ব্যবহার করে কথা বলতে পারেন না, তাদের মস্তিষ্কের বৈদ্যুতিক তরঙ্গ শনাক্ত করে তা ভাষার অক্ষরে রূপান্তরের যন্ত্র শিগগির উদ্ভাবন করা সম্ভব হবে।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech