মৌলভীবাজারে জেলেদের জালে বিরল প্রজাতির মাছ

  


পিএনএস, মৌলভীবাজার: মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে জেলেদের জালে ধরা পড়েছে বিরল প্রজাতির সাকার মাছ। কালো বর্ণের শরীরে হালকা হলুদ রংয়ের ছাপ লাগানো এক ফুট লম্বাকৃতির মাছটির কাঁটাযুক্ত শরীরে কোনও আঁশ নেই। মুখমণ্ডল বেশ বড় এবং মুখটা নিচের দিকে দেখা যায়। মাছটির ওজন আনুমানিক দুই কেজি হবে।

উপজেলার মতিগঞ্জ এলাকায় বিলাস নদীতে মঙ্গলবার বিকেলে স্থানীয় জাহাঙ্গীর মিয়ার জালে মাছটি ধরা পড়ে।

এরপর মাছটি স্থানীয় বাজারে বিক্রির জন্য নিয়ে যান জাহাঙ্গীর মিয়া। প্রথমে মতিগঞ্জ বাজার, পড়ে সাতগাঁও ও লছনা বাজারে মাছটিকে নিয়ে অনেক্ষণ ঘুরেন তিনি। সন্ধ্যার দিকে উপজেলার ভূনবীর ইউনিয়নের পশ্চিম আলিশারকুল গ্রামের আদর মিয়া শখের বশে সাড়ে তিনশ টাকায় মাছটিকে কিনে বাড়িতে নিয়ে যান। রাতভর বড় একটি পাত্রে পানি ভর্তি করে সেখানে মাছটিকে রেখে পরদিন ২০ জুন বুধবার সকালে বাড়ির পুকুরে মাছটিকে ছেড়ে দেন। এসময় খবর পেয়ে বিরল প্রজাতির এই মাছটিকে এক নজর দেখতে আদর মিয়ার বাড়িতে আশপাশের লোকজন ভিড় করেন।

এ ব্যাপারে জেলে জাহাঙ্গীর মিয়া জানান, জালে হঠাৎ করে এ ধরনের একটি অপরিচিত মাছ দেখে প্রথমে চমকে ওঠেন তিনি। পরে এটিকে বিক্রির জন্য বাজারে নিয়ে যান। এসময় সাতগাঁও বাজারের পল্লীচিকিৎসক মলয় সরকার মাছটির ছবি তুলে তার ফেসবুকে প্রচার করেন। খবর পেয়ে মাছটিকে দেখতে ও কিনতে অনেকেই তার সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

মাছটির ক্রেতা আদর মিয়া বলেন, এই মাছটিকে তিনি জীবনে প্রথম দেখেছেন। তাই এটিকে বাড়ির পুকুরে পালনের জন্য কিনে নিয়েছেন তিনি।

শ্রীমঙ্গল বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক সজল দেব জানান, এটি দেশীয় কোনও মাছ নয়। এটি একটি বিদেশি জাতের সামুদ্রিক মাছ। মাছটির নাম সাকার। এই প্রজাতির মাছগুলোকে সাধারণত অ্যাকুরিয়ামের দোকানে কিংবা বাসা-বাড়িতে সাজানো শো-পিচের মধ্যে বেশি দেখা যায়। এরা সাধারণত শেওলা ও পোকামাকড় খেয়ে জীবন ধারণ করে। তবে এ জাতীয় মাছ পুকুরে চাষাবাদ কিংবা খাওয়ার উপযোগী নয়।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech