কিডনি বিকল বলে প্রতারণা!

  

পিএনএস ডেস্ক : কথা বলেন শুদ্ধ ভাষায়। নিজের পরিচয় দেন গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজের রসায়ন বিভাগের বিএসসি ২য় বর্ষের ছাত্র হিসেবে। এরপর নিজের দুটি কিডনিই বিকল ও বাবা নেই জানিয়ে সবার কাছে অর্থ সাহায্য চান তিনি।

তবে তার সব কথাই মিথ্যা। এভাবেই দীর্ঘদিন যাবত মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিলেন তিনি।

অবশেষে ধরা পড়েছেন এই প্রতারক। বৃহস্পতিবার দুপুরে ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কার্যালয়ে প্রতারণা করতে গিয়ে আটক হন তিনি। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে তাকে ৭ দিনের কারাদণ্ড দেন ইউএনও উসমান গনি।

প্রতারক আমিরুল ইসলাম কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার রেফায়েতপুর গ্রামের মান্নান ফরাজির ছেলে।

ইউএনও উসমান গনি বলেন, সে আমার রুমে প্রবেশ করেই জানায় শৈলকুপা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ ও শৈলকুপা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রেজাউল করিম তার পরিচিত। এ জন্য আমার কাছে এসেছে। তখনই আমার সন্দেহ হয়। পরে জেরা করে জানতে পারি সবই ভুয়া। জীবনে কোনদিনও স্কুলে যায়নি, তবে নাম স্বাক্ষর করতে পারে।

তিনি আরও বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের প্যাডে ইউপি চেয়ারম্যান, ২ জন কলেজের অধ্যক্ষ, শিক্ষা অফিসারের সুপারিশসহ বিভিন্ন স্কুল, কলেজসহ সরকারি দফতরে ঘুরে মানুষের আবেগকে পুঁজি করে টাকা আদায় করে সে। তবে শেষ রক্ষা হলো না, এই প্রতারককে জেলেই যেতে হল।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech