পেট্রাপোল-বেনাপোল বন্দরে আমদানি-রফতানি বন্ধ ৩ দিন

  

পিএনএস ডেস্ক: ভারতের পেট্রাপোল ও বাংলাদশের বেনাপোল স্থলবন্দরের মধ্যে তিনদিন ধরে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ থাকায় অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে।

শনিবার (২২ সেপ্টেম্বর) থেকে সোমবার (২৪ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত একটানা বাণিজ্য বন্ধের ফলে পেট্রাপোল সীমান্তে পণ্যবাহী ট্রাক দাঁড়িয়ে থাকতে বাধ্য হয়েছে।

এ বিষয়ে পেট্রাপোল ক্লিয়ারিং অ্যান্ড ফরওয়ার্ডিং স্টাফ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চক্রবর্তী বলেন, বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সংলাপের মধ্য দিয়ে মঙ্গলবার অচলাবস্থা দূর হতে পারে।

তিনি বলেন, ভারত থেকে বাংলাদেশের বেনাপোল স্থলবন্দরে যেসব পণ্যবাহী ট্রাক যায় তাদের কাছ থেকে পণ্য খালাসকে কেন্দ্র করে বকশিসের নামে অত্যাধিক পরিমাণ অর্থ আদায়ের প্রতিবাদে সীমান্ত বাণিজ্য বন্ধ রয়েছে। অত্যাধিক অর্থ আদায় বন্ধের দাবিতে ট্রাক মালিক সমিতির পক্ষ থেকে বাণিজ্য বন্ধের কর্মসূচি হাতে নেয়ায় অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ওই ইস্যুতে গত ১২ সেপ্টেম্বর উভয়পক্ষের মধ্যে এক বৈঠকে সমস্যা নিরসনের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তাতেও কোনো সুরাহা হয়নি। বাংলাদেশের বর্ডারম্যান, সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টের লোক, শ্রমিক, নিরাপত্তা এজেন্সি প্রভৃতি জায়গায় ভারতীয় ট্রাক চালকদের কাছ থেকে অত্যাধিক অর্থ আদায় করা হয় বলেও কার্তিক চক্রবর্তী জানান।

ভারতের পেট্রাপোল স্থলবন্দর থেকে দৈনিক তিনশ’ থেকে সাড়ে তিনশ’ ট্রাক পণ্যবাহী ট্রাক বাংলাদেশের বেনাপোল স্থলবন্দরে যায় এবং বাংলাদেশের বেনাপোল স্থলবন্দর থেকে দৈনিক দেড়শ’ থেকে দুইশ’ পণ্যবাহী ট্রাক ভারতের পেট্রাপোল স্থলবন্দরে আসে।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে স্থলবাণিজ্যের প্রায় ৯০ শতাংশই বেনাপোল-পেট্রাপোল স্থলবন্দর দিয়ে হয়।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech