নওগাঁর মহাদেবপুরে পাওনা টাকা না দিয়ে উল্টো মামলা দায়ের

  


পিএনএস, নওগাঁ প্রতিনিধি : নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার উত্তরগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ফিরোজ হোসেনকে পাওনা টাকা ফেরত না দিয়ে উল্টো তার বিরুদ্ধেই মিথ্যা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়েরের প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। শুক্রবার সকালে স্থানীয় একটি হোটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ফিরোজ হোসেন লিখিত বক্তব্যে বলেন, উপজেলার চকদৌলতপুর গ্রামের মৃত আ: সালামের স্ত্রী সামসুন্নাহার সাবানা (৩৩) ও তার ভাই একই গ্রামের বাসীন্দা মৃত আ: ছামাদের ছেলে আনোয়ার (৩০) ২০১৬ সালের ২০ সেপ্টেম্বর ৩’শ টাকার ননজুডিশিয়াল ষ্ট্যাম্পে চাহিবামাত্র ফেরত দেওয়ার অঙ্গীকার করে তার কাছ থেকে দুই লক্ষ টাকা কর্জ নেয়। গত ৪ আগস্ট বিকেলে তাদের নিকট পাওনা টাকা চাইতে গেলে তারা টাকা দিতে অস্বীকার করেন। এ ব্যাপারে গত ৮ আগস্ট ফিরোজ হোসেন বাদী হয়ে নওগাঁর ৩নং আমলী আদালতে সামসুন্নাহার সাবানা ও আনোয়ারের বিরুদ্ধে ৪০৬/৪২০/৩৪ ধারায় একটি মামলা (৩৪৬ সি/২০১৮ মহা:) দায়ের করেন। মামলার বিষয়টি জানতে পেরে সামসুন্নাহার সাবানা বাদী হয়ে নওগাঁর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এ ফিরোজ হোসেন এবং উপজেলার উত্তরগ্রাম গ্রামের মৃত রফিক উদ্দীনের ছেলে আজিজার রহমানের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন-২০০০ তৎপর ২০০৩ সালের সংশোধিত আইনে ৯(৪)(খ)/৩০ ধারায় সম্প্রতি একটি পাল্টা মামলা দায়ের করে।

বিচারক মামলাটি তদন্ত করে এজাহার হিসাবে গণ্য করার জন্য মহাদেবপুর থানার ওসিকে নির্দেশ দেন। ফিরোজ হোসেন দাবী করেন যে, তাকে আর্থিক ও সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য এবং মামলা থেকে বাঁচতে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা পাল্টা মামলা দায়ের করা হয়েছে। তিনি সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে মিথ্যা মামলার হয়রানী থেকে অব্যাহতি কামনা করেন। আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে উপজেলায় কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech