রামপালে যৌতুকলোভী স্বামীর নির্মম নির্যাতনের শিকার গৃহবধু সুপ্রিয়া

  

পিএনএস, স্টাফ রিপোর্টার (বাগেরহাট) : রামপালে যৌতুকলোভী স্বামীর নির্মম নির্যাতনের শিকার গৃহবধু সুপ্রিয়া রানী পাল থানায় মামলা করায় অব্যাহত হুমকিতে নিরাপত্তাহীনতায় পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, উপজেলার গিলাতলা গ্রামের শিবপদ পালের কন্যা বাগেরহাট সদরের দক্ষিন খানপুর গ্রামের রনজিৎ পালের পুত্র নিতাই চন্দ্র পালের সাথে গত ইং ২৬/১১/২০১৫ তারিখ বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে যৌতুকলোভী স্বামী নিতাই পাল, শশুর রনজিৎ পাল, শাশুড়ী শিখা রানী পাল ও তাদের সহযোগেী পলাশ কুমার পাল বিভিন্ন ভাবে চাপ প্রয়োগ ও মারপিট করে যৌতুক আদায় করে। স্বামী শশুরের দাবি পুরণ না হওয়ায় গৃহবধু সুপ্রিয়াকে পিতার বাড়ি গিলাতলায় পাঠিয়ে দেয়।

গত ১৭/০৭/২০১৮ তারিখে বিকাল অনুমান ৫ টায় ওই আসামিরা গৃহবধু সুপ্রিয়ার বাড়িতে এসে ২ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবি করে। যৌতুকের টাকা দিতে অস্বীকার করায় আসামীরা তাকে পিটিয়ে মারাত্বক জখম করে। এ ঘটনায় কোন মামলা করলে সবাইকে জীবনে শেষ করে ফেলার হুমকি দেয়। শালিস মিমাংসা করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে নির্যাতিতা গৃহবধু সুপ্রিয়া গত ইং ৪ অক্টোবর রামপাল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। তদন্তকারী এসআই মিজানুর রহমান শনিবার রাতে নিতাই পালকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করার পর অপর আসামী পলাশ কুমার পাল ক্ষীপ্ত হয়ে মামলা তুলে নেওয়ার হুমকি প্রদান করে। এ ব্যাপারে রামপাল থানার তদন্তকারী এসআই মিজানুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, যত দ্রুত সম্ভব আসামীদের আটক করে আইনের আওতায় আনা হবে।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech