টঙ্গীতে রামদা-ছোরা নিয়ে হামলায় নিহত ১

  



পিএনএস ডেস্ক: গাজীপুরের টঙ্গী পূর্ব আরিচপুর এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও জনমনে ভীতি সৃষ্টির লক্ষ্যে রামদা-ছোরা নিয়ে পথচারী ও সাধারণ মানুষের হামলা চালিয়েছে স্থানীয় একটি দল। এ ঘটনায় এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন অন্তত ছয়জন। এদের মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
শনিবার রাত পৌনে ৯টার দিকে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

নিহত কিশোরের নাম হাবিবুর রহমান (১৭)। তিনি জামাইবাজার এলাকার রিকশাচালক মো: আশরাফুল ইসলামের ছেলে। আহতরা হলেন- হাসান (১৮), জিসান (১৫), রোহান (১৫), মাহফুজ (১৪), হাফেজ আহাম্মেদ বাবু (২৬), সোহেল (১৫)।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানান, রাত পৌনে ৯টার দিকে পূর্ব আরিচপুর এলাকার কৃষ্ণা, সজিব ওরফে মিষ্টি সজিব ও ইনতুজের নেতৃত্বে ৬০/৭০ জনের একটি দল আধিপত্য বিস্তারের লক্ষ্যে জামাই বাজার, রুপবানের টেক ও মধুমিতা এলাকায় সশস্ত্র মহড়া দেয়। এদের প্রত্যেকের হাতে ধারালো ছুরি, রামদা, চাপাতি ও লোহার পাইপ ছিল।

এ সময় তাদের এলোপাতাড়ি কোপে ৬-৮ জন পথচারী আহত হন। আহতদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা হাবিবুর রহমানকে মৃত ঘোষণা করেন। আহতদের মধ্যে হাসানের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

টঙ্গী পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. কামাল হোসেন বলেন, এ ঘটনায় রাজিব নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। দুর্বৃত্তদের গ্রেপ্তারে পুলিশের বেশ কয়েকটি টিম কাজ করছে।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech