ঝিনাইদহে জঙ্গি সন্দেহে আটক ১

  

পিএনএস ডেস্ক : ঝিনাইদহ সদর উপজেলার কালুহাটী গ্রামে আজ ভোর ৪টায় জঙ্গি সন্দেহে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৬)। অভিযান শেষে ওই গ্রামের পশ্চিমপাড়ার কৃষক শরাফত হোসেন মন্ডলের ছেলে আকতারুজ্জামান সাগর (১৯) নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে। র‌্যাবের দাবি, সে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জামাআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) সদস্য। তবে গ্রামবাসি জানায়, আটক আকতারুজ্জামান সাগর এক সময় মানসিক রোগী ছিলেন। ২০১৫ সালে তিনি পাবনার মানসিক হাসপাতালে চিকিৎসাও নেন। গত ১৪ দিন আগে সাগর সদর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা গ্রামে বিয়ে করেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে আক্তারুজ্জামানের এক প্রতিবেশী বলেন, সে পুরো পাগল। ১৪ দিন আগে তার বিয়ে দেওয়া হয়েছে। বস্তা মাথায় দিয়ে শ্বশুর বাড়ি চলে যাওয়া, শ্বশুরের শরীর ভরে মূত্র ত্যাগ করাসহ পাগলের মতো বিভিন্ন আচরণ করেছে সে।

কিন্তু সে কীভাবে জঙ্গি হলো বুঝে উঠতে পারছি না।

আটক আক্তারুজ্জামানের পাগলের মতো এমন আচরণের কথা অন্তত ২০ জন প্রতিবেশী প্রতিবেদককে জানান। তারা বলেন, সবাই তাকে পাগল বলে আখ্যায়িত করেছেন। সকলের প্রশ্ন, পাগল কীভাবে জঙ্গি হয়?
কৃষক শরাফত হোসেন মন্ডল জানান, আমার ছেলের মাথায় সমস্যা আছে। সে মানসিক রোগী। ঝিনাইদহ, ঢাকা তারপর পাবনা মানসিক হাসপাতালেও তাকে ডাক্তার দেখিয়েছি। এ সময় তিনি ডাক্তারের কাছে ছেলের দেখানো চিকিৎসাপত্র দেখিয়ে বলেন, এখনো সে মাঝে মাঝেই পাগলামি করে। বিয়ের পর সাগর মসজিদের পাপোষ (ছেড়া বস্তা) মাথায় করে শ্বশুরবাড়ি গিয়ে ওঠে। এ নিয়ে তার শ্বশুর মামুন আমার কাছে অভিযোগ করেন। শ্বশুর বাড়ি গিয়ে দাঁড়িয়ে প্রস্রাব করা ও বিড়ি সিগারেট খাওয়ার কথাও তার শ্বশুর উল্লেখ করেন। শরাফত হোসেন দাবী করেন, কালুহাটী হেফজখানা থেকে তার ছেলে কোরআনের হাফেজ।

ওই গ্রামের দাখিল মাদ্রাসা থেকে দাখিল পরীক্ষা দেবার সময় ৫টি পরীক্ষা দিয়ে সে পালিয়ে যায়। তবে মাঝেমধ্যেই সে পালিয়ে যেত। দুই বছর আগে র‌্যাব তাদের বাড়ি এসে তার ছেলেকে বিয়ে দেওয়ার পরামর্শ দিয়ে যান বলে সাগরের পিতা শরাফত হোসেন উল্লেখ করেন। গ্রামবাসিদের মধ্যে বৃদ্ধ হাবিবুর রহমান ও এমদাদুল হক দুদুসহ অনেকেই তাকে মানসিক ভারসম্যহীন হিসেবে জানে। জেহাদ নামে সাগরের এক শিশু বন্ধুর সাথেই সাগর বেশি ঘুরে বেড়াতেন। জিহাদ জানান, সাগর মজার মজার অসংলগ্ন কথা বলে মজা করে বলে তার সাথে আমার বন্ধুত্ব ছিল। সাগরের নববধু শারমিন আক্তার জানান, তাদের দুই সপ্তাহ আগে বিয়ে হয়েছে। তার মধ্যে তিনি খারাপ কিছু পাননি। তবে বিয়ের পর শুনেছেন পাগলামির কারণে তার স্বামী পাবনার মানসিক হাসপাতালসহ বিভিন্ন স্থানে চিকিৎসা নিয়েছেন।

খুলনা র‌্যাব-৬ এর অধিনায়ক হাসান ইমন আল রাজিব জানান, জঙ্গী আস্তানার খবর পেয়ে গান্না ইউনিয়নের কালুহাটি গ্রামের কৃষক শরাফত হোসেনের বাড়িতে অভিযান চালায় র‌্যাব। অভিযানে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জামাআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) সদস্য সন্দেহভাজন জঙ্গি আখতারুজ্জামান সাগরকে আটক করা হয়েছে। তার কাছ থেকে একটি ডামি বন্দুক ও কিছু জিহাদি বই জব্দ করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে অনেক তথ্য পাওয়া যেতে পারে বলে র‌্যাব-৬ মনে করছে। তবে আমরা নিরাপরাধ কাউকে হয়রানী করবো না বলে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি উল্লেখ করেন।

আজ ভোর সাড়ে চারটার দিকে কালুহাটি গ্রামে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে বাড়িটি ঘিরে রাখে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব-৬)। বুধবার সকাল ৮টার দিকে অভিযনি শুরু করে ৯টার পর র‌্যাব অভিযান সমাপ্ত ঘোষণা করে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech