স্বামীর কুলখানি শেষে ফেরার পথে লাশ হলেন স্ত্রী

  

পিএনএস ডেস্ক : স্বামীর কুলখানি শেষে চট্টগ্রামে ফেরার পথে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ট্রেন দুর্ঘটনায় মারা গেছেন স্ত্রীও।

সোমবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে এই ট্রেন দুর্ঘটনায় মারা যান শ্রীমঙ্গলের জাহেদা খাতুন (৪৫)।

মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন জাহেদার মা ও তার তিন সন্তান। তাদের বাড়ি শ্রীমঙ্গল উপজেলার গাজীপুর এলাকার রামনগরে।

জাহেদার ননদ হাসিনা খাতুন জানান, মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার গাজীপুর এলাকার রামনগরের মুসলিম মিয়া পরিবার পরিজন নিয়ে কর্মসূত্রে চট্টগ্রামের পাহাড়তলীতে বসবাস করতেন। তিনি জাহাজকাটা শিল্পে কাজ করতেন।

জাহাজ কাটার সময় গত ৭ নভেম্বর মুসলিম দুর্ঘটনায় মারা যান। স্বামীর দাফন ও কুলখানি সম্পন্ন করতে স্ত্রী জাহেদা দুই ছেলে, দুই মেয়ে ও শাশুড়িকে নিয়ে শ্রীমঙ্গলে বাড়িতে আসেন।

কুলখানি শেষে সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে সিলেট থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী উদয়ন এক্সপ্রেসে করে তারা চট্টগ্রাম ফিরছিলেন। রাত ৩টার দিকে কসবায় ট্রেন দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় জাহেদার।

এ দুর্ঘটনায় আহত হন জাহেদার বড় ছেলে ইমন (১৭), মেয়ে সুমী (১৯), মীম (৮) ও মা সুরাইয়া খাতুন। তাদের মধ্যে ইমন ও সুরাইয়া খাতুনের দুই পা দেহ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

আহতদের উদ্ধার করে ঢাকার জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানে (পঙ্গু হাসপাতালে) পাঠানো হয়েছে। দুই মেয়ে সুমী ও মীম ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এই পরিবারের আরেক সদস্য সুমন ভিন্ন বগিতে থাকায় সুস্থ আছেন বলেন জানান হাসিনা খাতুন।

সোমবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী তূর্ণা নিশীথা আর সিলেট থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনের সংঘর্ষে কয়েকটি বগি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এতে ১৬ জন নিহত ও শতাধিক আহত হন।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech