ধান ওড়ানোর ধুলা পাশের বাড়ি যাওয়ায় সংঘর্ষ, আহত ৮

  

পিএনএস ডেস্ক : বাড়ির ভেতর ধান ওড়ানোর ধুলা পাশের বাড়িতে যাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই পরিবারের মধ্যে সংঘর্ষে অন্তত আটজন আহত হয়েছেন। আজ সোমবার সকালে কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার ডাঙ্গীপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ডাঙ্গীপাড়ার কৃষক মোজ্জামেল আলীর স্ত্রী তাঁর বাড়ির আঙিনায় আমন ধান ওড়ানোর কাজ করছিলেন। ধানের ধুলাবালু প্রতিবেশী রমজান আলী বাড়িতে যাওয়ায় দুই পরিবারের মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রোববার রাত থেকে সোমবার সকাল পর্যন্ত দুই পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় হামলা ও সংঘর্ষ হয়। এতে আহত হয়েছেন কৃষক মোজাম্মেল আলী প্রামাণিক, তাঁর স্ত্রী রহিমা, ছেলে আলামীন, মেয়ে খুশি এবং তাঁদের স্বজন রফিকুল ইসলাম ও মারুফ। অপর পক্ষের আহত ব্যক্তিরা হলেন রমজান আলী, মালেকা খাতুন ও আলম। আহত সবাই খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রাজবাড়ী সরকারি কলেজের সম্মান শ্রেণির ছাত্র আলামীন বলেন, তাঁদের বাড়িতে ধান ওড়ানোর কাজ করা হচ্ছিল। প্রতিবেশী রমজান আলী ধান ওড়ানোতে বাধা দেন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রমজান আলীর লোকেরা রোববার রাত থেকে সোমবার সকাল পর্যন্ত কমপক্ষে তিনবার হামলা চালিয়ে তাঁদের পরিবারের লোকদের মারধর করেন। হামলাকারীদের হাত থেকে তাঁর অন্তঃসত্ত্বা ছোট বোনও বাদ পড়েননি। তাঁর বোন খুশির চোয়ালের মাংস কামড়ে খুবলে নেওয়া হয়েছে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রমজান আলী বলেন, ধানের ধুলা বাড়ির ভেতর ঢুকে নানা সমস্যা হচ্ছিল। এটার প্রতিবাদ করা হয়েছে। এতেই তাঁরা উত্তেজিত হয়ে পড়েন।

খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত উপসহকারী চিকিৎসা কর্মকর্তা জাহিদ হাসান বলেন, রক্তাক্ত আহত মোজাম্মেলসহ অধিকাংশের ওপর ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে কামড়ে খুশির চোয়ালের মাংস ছিঁড়ে নেওয়ার ক্ষতটা একটু জটিল।

খোকসা থানার উপপরিদর্শক আবদুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে হাসপাতালে আহত ব্যক্তিদের দেখতে যায় পুলিশ। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পিএনএস-জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech