হাওরে বেড়াতে গিয়ে নিখোঁজ কলেজছাত্রের লাশ মিলল দুদিন পর

  

পিএনএস ডেস্ক : কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জের হাওরে বেড়াতে গিয়ে নিখোঁজ কলেজছাত্র একরামুল ইসলামের (২০) মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ সোমবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার হাসনপুর সেতু সংলগ্ন হাওর থেকে ভাসমান অবস্তায় তার লাশ উদ্ধার করে নৌ-পুলিশ।

গত শনিবার সন্ধ্যার দিকে হাওরে বেড়ানোর সময় গোসল করতে গিয়ে চাচাতো ভাই কলেজ শিক্ষক মো. হাদিউর রহমান রুবেল (৩৫) ও একরাম নিখোঁজ হন। ওই দিন সন্ধ্যার পর নৌ-পুলিশ পানি থেকে কলেজশিক্ষক হাদিউরের লাশ উদ্ধার করলেও খুঁজে পায়নি একরামকে। রবিবার সারাদিন উদ্ধার অভিযান চালিয়েও তার কোনো সন্ধান পায়নি ডুবুরিরা।

নিহত একরাম জেলার কটিয়াদী উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের চরপক্ষিয়া গ্রামের কাইমুল ইসলামের ছেলে। তিনি কিশোরগঞ্জ গুরুদয়াল সরকারি কলেজের ছাত্র ছিলেন। আর হাদিউর রহমান কটিয়াদী উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের চরপক্ষিয়া গ্রামের শামসুল ইসলামের ছেলে। তিনি টাঙ্গাইলের সখীপুর সরকারি মহিলা কলেজের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক ছিলেন। তারা সম্পর্কে চাচাতো ভাই।

চামটাঘাট নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মো. নাজমুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, গত দুই দিন হাওরে উদ্ধার অভিযান চালিয়েও একরামকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। সোমবার সকালে হাসনপুর সেতুর পাশে হাওরে ভাসমান অবস্থায় তার লাশটি পাওয়া যায়।

করিমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মমিনুল ইসলাম বলেন, একরামের মরদেহ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এর আগে হাদিউর রহমানের লাশও হস্তান্তর করা হয়। এ দুজনের মৃত্যু বিষয়ে থানায় অপমৃত্যু মামলা হচ্ছে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন