মসজিদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুই দলের সংঘর্ষ, আহত ৩০

  

পিএনএস ডেস্ক : কিশোরগঞ্জের ভৈরবের কালিকা প্রসাদে জুম্মার নামাজ শেষে আড়াইটা থেকে দুই দল গ্রামবাসীর দফায় দফায় সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ৩০ আহত হয়। এ সময় উভয় পক্ষের বেশ কয়েটি বাড়িঘর ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এবং একটি পাকঘর ও একটি বসতঘরের আসবাবপত্রে আগুন ধরিয়ে দেত্তয়ার অবিযোগ উঠে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে।

খবর পেয়ে ভৈরব থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে শুক্রবার সাড়ে ৫টার দিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে আহতদের উদ্ধার করে ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে এলাকাবাসী। আহতদের বেশ কয়েকজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ছেড়ে দেত্তয়া হয়। অনেকে এলাকায় ও চিকিৎসা নিতে দেখা যায়।

পুলিশ ও এলকাবাসী জানায়, ভৈরব উপজেলার কালিকা প্রসাদের ঝগড়ার চর এলাকায় একটি মসজিদের সংস্কার কাজের ৫০ হাজার টাকা কমিটির সভাপতি মজিবুররে নিকট জমা ছিল। এ টাকা ফেরত না দেত্তয়ার ঘটনা কে কেন্দ্র করে বিপক্ষদল ফিরোজগংদের সঙ্গে এক মাসে কয়েক দফা সংঘরর্ষ হয়। এলাকাবাসী চেষ্টা করে ও কোনো সমাধানে আসেনি। তারই জের ধরে শুক্রবার জুম্মার পর আবার মুজিবুর গং এবং ফিরোজ গং একই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। তিন ঘণ্টাব্যাপী এ সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ত্রিশ জন আহত হয়। ভাঙচুর হয় ৮/১০টি বাড়িঘর। এসময় ফিরোজের পক্ষের দুটি ঘরে আগুন দেত্তয়ার অভিযোগ উঠে মজিবুর গংদের বিরুদ্ধে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন