আ.লীগের অধিকাংশ ‘বিদ্রোহী প্রার্থী’ বাতিল

  


পিএনএস ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বেশিরভাগ ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। মনোনয়ন ফরমে ভুলত্রুটিসহ বিভিন্ন কারণে তাদের মনোনয়ন বাতিল করেছে সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং অফিসাররা। তবে দুয়েকটি আসনে শক্ত কয়েকজন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ বলে বিবেচিত হয়েছে।

রংপুর-৩ ও ঢাকা-১৭ আসনে বৈধ প্রার্থী হয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। রংপুর-৩ আসনে আওয়ামী লীগের নেতা হুলু সরকার স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছিলেন কিন্তু কিছু অসঙ্গতি থাকায় তার মনোনয়ন বাতিল হয়েছে। ঢাকা-১৭ আসনে এরশাদ ছাড়াও ক্ষমতাসীন জোটের প্রার্থীদের মধ্যে মাহী বি চৌধুরী (বিকল্প ধারা) ও আব্দুল কাদের খান ও আকবর খান পাঠানের (আওয়ামী লীগ) মনোনয়নপত্র বৈধ বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

ঢাকা-১ আসনে বৈধ প্রার্থী আওয়ামী লীগের সালমান এফ রহমান এবং জাতীয় পার্টির সালমা ইসলাম। রংপুর-১ আসনে জাতীয় পার্টির নেতা মশিউর রহমান রাঙা বৈধ প্রার্থী হয়েছেন। এই আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা আসাদুজ্জামান বাবলু। কিন্তু তার মনোনয়ন বাতিল হয়েছে। ময়মনসিংহ-৪ ও ৭ আসনে বৈধ প্রার্থী হয়েছেন জাতীয় পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ। ময়মনসিংহ-৪ আসনে আওয়ামী লীগ নেতা আমিনুল হক শামীম স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। তার মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। ময়মনসিংহ-৭ আসনে আওয়ামী লীগ থেকে বৈধ প্রার্থী হয়েছেন রুহুল আমিন মাদানী। চট্টগ্রাম-৫ আসনে জাতীয় পার্টির নেতা ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বৈধ প্রার্থী। ঢাকা-৬ আসনে মহাজোটের একমাত্র বৈধ প্রার্থী জাপা নেতা কাজী ফিরোজ রশিদ। কুড়িগ্রাম-২ আসনের বৈধ প্রার্থী পনির উদ্দিন আহমেদ (জাপা)। এই আসনের আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থী চৌধুরী সফিকুল ইসলাম ও আবু সুফিয়ান এবং জাসদ প্রার্থী সলিমুল্লাহ ছলির মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

কুড়িগ্রাম-৪ আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী মো. রুহুল আমিনের মনোনয়ন বৈধ বলে ঘোষণা করা হয়েছে। এই আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী জাকির হোসেনের মনোনয়নপত্র বাতিল হয় নির্বাচন কমিশন নির্ধারিত ফরমের ৭ ও ৮ নং কলাম পূরণ না করায়। নীলফামারী-৪ আসনে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান থাকায় রশিদুল ইসলাম, দলীয় মনোনয়ন না থাকায় আওয়ামী লীগের আক্তার হোসেন বাদল, আমিনুল ইসলাম সরকার ও আমেনা কোহিনুরের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে। এখানে বৈধ প্রার্থী শওকত চৌধুরী (জাপা)।

দুয়েকটি আসনে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী না দিলেও দলটির স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র বৈধ বলে ঘোষিত হয়েছে। লক্ষ্মীপুর-২ আসনে মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে মাঠে রয়েছেন জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি মোহাম্মদ নোমান। এই আসনে মনোনয়নপত্র বৈধ হয়েছে আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থী শহিদুল ইসলাম পাপুলের। লক্ষ্মীপুর-১ আসনে মহাজোটের বতর্মান এমপি তরিকত ফেডারেশনের মহাসচিব এমএ আউয়ালের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে।

তরিকত ফেডারেশন থেকে তিনি বহিষ্কৃত হয়েছেন। তার বদলে লক্ষ্মীপুরের আরেক ব্যবসায়ীর জন্য মনোনয়ন চান তরিকতের চেয়ারম্যান নজিবুল বশর মাইজভান্ডারি। নড়াইল-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী কবিরুল হক মুক্তি ও ১৪ দলীয় জোটের প্রার্থী জাসদ একাংশের সভাপতি শরীফ নুরুল আম্বিয়া দুজনের মনোনয়নপত্রই বৈধ বলে বিবেচিত হন। এই আসনে এখনো আসন সমঝোতা চূড়ান্ত করেনি আওয়ামী লীগ।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech