গাঁজা দিয়ে তৈরি সুস্বাদু খাবার! - স্বাস্থ্যকথা - Premier News Syndicate Limited (PNS)

গাঁজা দিয়ে তৈরি সুস্বাদু খাবার!

  

পিএনএস ডেস্ক: ব্যাপারটা গাঁজাখুরি নয়! পৃথিবী জুড়েই ব্যাপক আলোচিত গাঁজা। আমাদের মতো রক্ষণশীল দেশগুলোতে এই নেশাদ্রব্যটি মানুষ ভালোভাবে না দেখলেও পশ্চিমা দেশগুলোতে অহরহ সেবন করা হয় এটি। তবে নেতিবাচক বিভিন্ন প্রতিক্রিয়া থাকার কারণে গাঁজাকে কেউ স্বাভাবিকভাবে নেয় না।

মজার ব্যাপার হচ্ছে, এই নেশাদ্রব্যটি থেকে তৈরি করা হয়েছে নতুন সুস্বাদু খাবার। নতুন এই খাবারের নাম ক্যানাবিস কুইজিন। পৃথিবীর যে দেশগুলোতে গাঁজা নিষিদ্ধ নয় সেখানে ধীরে ধীরে বাড়ছে এই ক্যানাবিস কুইজিনের জনপ্রিয়তা।

এরইমধ্যে রীতিমতো চমকে দিচ্ছেন ক্যালিফোর্নিয়ার এক রাঁধুনি। ক্রিস্টোফার সয়েগ নামের এই রাঁধুনির বিশ্বদরবারে পরিচিতি ‘দ্য হার্বাল শেফ’ নামে। নানা রকমের ভেষজ নির্যাস মিশিয়ে খাবারকে আরো সুস্বাদু করে তোলার জন্যই তার এই খেতাব। এখন তার রান্নায় ব্যবহৃত নানা ভেষজের তালিকায় যুক্ত হয়েছে গাঁজাও।

ভাবছেন, কিভাবে গাঁজাকে রান্নার মশলা হিসেবে ব্যবহার করছেন বছর চব্বিশের এই বিখ্যাত রাঁধুনি? গাঁজার প্রভাবে রান্না যাতে বিস্বাদ হয়ে না যায়, তার জন্য অবশ্য একটু খাটতে হচ্ছে ক্রিস্টোফারকে। প্রথমে গাঁজার পাতা পিষে বের করে নিতে হচ্ছে নির্যাস। ঘন তেলের মতো সেই নির্যাসই আপাতত কাজ করছে ক্রিস্টোফারের খ্যাতির নেপথ্যে।

নির্যাস বের করে নেয়ার পর বাকিটা যেভাবে রান্না হয় তেমনই। একটা সিরিঞ্জে সেই তরল ভরে নিয়ে সেটা দিয়েই রান্না করেন করছেন সুস্বাদু খাবার। রান্না হয়ে গেলে খুব সামান্য পরিমাণে, মাত্র এক কি দুই ফোঁটা মিশিয়ে দিচ্ছেন খাবারে।

মাত্র একটি কী দুটি খাবারেই থেমে থাকছে না এই ক্যানাবিস কুইজিনের জয়যাত্রা। ক্রিস্টোফার জানান, যেকোনো খাবার, শরবত, মিষ্টি বা তরকারি- তাতে গাঁজার নির্যাস মিশিয়ে দেয়া যায়। গাঁজার নির্যাসে যে খাবার আরো সুস্বাদু হয়ে ওঠে, এমনটা কিন্তু নয়। তার স্বাদ থাকে একই রকম।

গাঁজার ক্ষতি প্রসঙ্গে ক্রিস্টেফারে বলেন, ‘আমি এটা কখনই ভুলি না যে আমি আমার সমাজের কাছে দায়বদ্ধ। তাই এমন পরিমাণে গাঁজার নির্যাস মেশাই না যা শরীরের ক্ষতি করতে পারে।’

দামটাও কম নয় তার খাবারের। এক প্লেটের দাম পড়ছে ৫০০-৭০০ ডলার। তবে সেটা ব্যয় করেও অনেকেই উপভোগ করছেন এই খাবার।

পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech