আফগানিস্তানে সরকারি বাহিনী-তালেবান সংঘর্ষ

  

পিএনএস ডেস্ক : আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশের রাজধানী গজনীতে তালেবানের সঙ্গে সরকারি বাহিনীর ভয়াবহ সংঘর্ষ হয়েছে। এতে ৩৯ তালেবান যোদ্ধা এবং ১৪ সেনার হতাহত হয়েছে বলে আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

আফগানিস্তানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মোহাম্মদ রাদমানিশ বলেন, সেনাবাহিনী এবং পুলিশের সহায়তায় বর্তমানে শহরটি সরকারি বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে লড়তে আফগান বাহিনীকে সাহায্য করছে যুক্তরাষ্ট্রের হেলিকপ্টার, ড্রোন। অন্যদিকে তালেবানের দাবি সংঘর্ষের পর তারা শহরের একটি অংশ দখলে নিয়েছে।

গজনীর কতটুকু অংশ সরকারের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে তা স্পষ্ট করে বলা যাচ্ছে না। কারণ স্থানীয় বাসিন্দারা বলেছেন, তারা এখনও গোলাগুলির শব্দ শুনছেন।

ঘটনাস্থলের পাশের এক বাসিন্দা জানান, তালেবানরা শহরের একটি পুলিশ চেকপয়েন্টের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে। তবে আফগান পুলিশ এবং মার্কিন বাহিনী একথা অস্বীকার করেছেন। তারা তালেবান যোদ্ধাদের পিছু হটিয়ে দিয়েছেন বলেও দাবি করেন।

গজনী সিটি হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তা বাজ মোহাম্মদ হেমাত জানিয়েছেন, কমপক্ষে ১৪ নিরাপত্তারক্ষী নিহত এবং ২০ জন আহত হয়েছেন।

প্রাদেশিক পুলিশের প্রধান ফরিদ আহমেদ মাশাল এপিকে জানিয়েছেন, যুদ্ধপরবর্তী সময়ে অনেক তালেবান যোদ্ধাদের মৃতদেহ রাস্তায় পড়ে ছিলো। শহরের দক্ষিণ প্রান্তের একটি সেতুর নিচ থেকে ৩৯ তালেবান যোদ্ধার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া বিমান হামলায় আরও অনেক তালেবান নিহত হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

সংঘর্ষ চলাকালীন শহরের সকল দোকানপাট বন্ধ ছিল। এছাড়া কাবুলের সঙ্গে আফগানিস্তানের দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশের যোগাযোগ ব্যবস্থাও বন্ধ করে দেয়া হয়। কারণ এই রাস্তা গজনীতে গিয়েছে।

পিএনএস/মো: শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech