এশিয়ায় করোনা মহামারি শেষ হতে এখনও অনেক দেরি : ডব্লিউএইচও

  

পিএনএস ডেস্ক : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) জানিয়েছে, এশিয়া মহাদেশে করোনা ভাইরাসের মহামারি শেষ হতে এখনও অনেক দেরি রয়েছে। করোনা মোকাবিলায় এশিয়া অঞ্চলে নেয়া পদক্ষেপগুলো শুধুমাত্র ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে সাহায্য করছে। তবে মহামারি শেষ হতে আরও অনেক সময় লাগবে।

ডব্লিউএইচও-এর বরাত দিয়ে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের আঞ্চলিক পরিচালক তাকেশি ক্যাসাই বলেছেন, ‘এ মুহূর্তে আমি এটুকু স্পষ্ট বলতে পারছি, এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে করোনা ভাইরাসের মহামারির সমাপ্তি দেখতে আরও অনেক দিন অপেক্ষা করতে হবে। এটি এ অঞ্চলের জন্য একটি দীর্ঘকালীন যুদ্ধে রূপে নিতে যাচ্ছে। আমরা কিছুতেই নির্ভার হয়ে বসে থাকতে পারি না। বড় ধরনের ধ্বংসলীলা দেখার আগে আমাদের সবাইকে প্রস্তুতি নিতে হবে করোনার বিরুদ্ধে।’

তিনি প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলসমূহের দ্বীপরাষ্ট্রগুলোর মতো সীমিত সম্পদের দেশগুলোকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সহায়তা দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

ক্যাসাই বলেন, ‘কোনও কোনও দেশে আক্রান্তের সংখ্যা কমতে শুরু করেছে। তাই বলে তাদের অসতর্ক হলে চলবে না। তাতে করে নতুন করে ভাইরাস হানা দিতে পালে। এসব অঞ্চলে ঝুঁকি থাকবেন। তারপরও এখন আমাদের বড় প্রস্তুতি নিতে হবে গণসংক্রমণ ঠেকানোর জন্য।’

এদিকে ডব্লিউএইচও-এর টেকনিক্যাল অ্যাডভাইসর ম্যাথিও গ্রিফিথ বলেছেন, ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা মনে করে না যে, করোনা ভাইরাসের ছোবল থেকে কোনও নির্দিষ্ট দেশ নিজেরা নিরাপদে থাকতে পারবে। কারণ এই ভাইরাস সব জায়গায় পৌঁছুবে। সিঙ্গাপুর ও দক্ষিণ কোরিয়ায় প্রাদুর্ভাব কমছে। কিন্তু সেসব দেশে বিদেশফেরত কেউ এটি নতুন করে বহন করে আনলে তা আবারও ছড়াতে পারে। এখন হয়তো করোনা ভাইরাসের মহামারির কেন্দ্র ইউরোপ। কিন্তু এটি যেকোনও সময় যেকোনও দেশে গণহারে সংক্রমিত হতে পারে।’

উল্লেখ্য, গেল বছরের ডিসেম্বরের দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি সনাক্ত হওয়ার পর গেল প্রায় তিন মাসে গোটা বিশ্বে প্রায় ৩৮ হাজার মানুষের প্রাণহানি হয়েছে। ৮ লাখেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। ইতালি, স্পেন ও যুক্তরাষ্ট্র মৃত্যু উপত্যকায় পরিণত হচ্ছে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন