জনসভায় না যাওয়ায় ব্যবসায়ীকে হাতুড়িপেটা করলেন যুবলীগ নেতা

  

পিএনএস ডেস্ক : রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত আওয়ামী লীগের জনসভায় না যাওয়ায় শিল্পাঞ্চল আশুলিয়ায় এক ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে। এসময় ওই যুবলীগ নেতার নির্দেশে একদল যুবক গেঞ্জি ব্যবসায়ী রাসেল হাওলাদারকে বেধরক পিটিয়ে আহত করে। একপর্যায়ে মারধরের শিকার ব্যবসায়ী জ্ঞান হারিয়ে ফেললে অভিযুক্ত যুবলীগ নেতার লোকজন তাকে মৃত ভেবে ফেলে রেখে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করেন। বুধবার রাতে আশুলিয়ার জামগড়া ছয়তলা এলাকায় এ মারধরের ঘটনা ঘটেছে।

এঘটনায় আহত ব্যবসায়ী বাদি হয়ে আজ আশুলিয়া থানায় একটি মামলা (নং-৩০) দায়ের করা হয়েছে। মামলার এজাহারভুক্ত আসামিরা হলো- আশুলিয়ার ইয়ারপুর ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সোহেল সরকার, আলমগীর হোসেন, মাসুম, শরীফ, আরাফাত, এরশাদ, মিলন, রেজাসহ অজ্ঞানামা ৭-৮ জন।

মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করে আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহবায়ক কবির হোসেন সরকার বলেন, একজন ছিনতাইকারীকে চর থাপ্পর দেওয়ার ঘটনায় যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক। পুলিশ বিষয়টি তদন্ত না করেই অর্থের বিনিময়ে থানা যুবলীগের অগোচরে মামলা নিয়েছে। আমাদের প্রতিপক্ষ একটি গ্রুপ যুবলীগের সুনাম নষ্টের জন্য উদ্দেশ্যমূলক ভাবে এসব অপকর্মে লিপ্ত রয়েছে। আমরা এঘটনায় পুলিশের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগসহ প্রয়োজনে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করবো।

ঢাকা ১৯ আসনের সংসদ সদস্য ডা.এনামুর রহমান বলেন, যুবলীগ নেতাকর্মীরা যদি কোন ব্যবসায়ীকে মারধর করে হত্যার চেষ্টা চালায় তবে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল আউয়াল বলেন, ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। ঘটনাটি তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। জড়িতদের গ্রেফতার কারার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

পিএনএস/জে এ /মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech