পুঁজিবাজার চাঙা করতে বিএমবিএ-ডিবিএ’র বৈঠক বিকেলে

  


পিএনএস ডেস্ক: নতুন বছরের শুরুতে আলোর ঝলকানি দিয়ে ফের হোঁচট খেয়েছে পুঁজিবাজার। টানা কয়েকদিনের দরপতনে ডিএসইর প্রধান সূচক কমেছে ২৩৮ পয়েন্ট। বিষয়টি ভাবিয়ে তুলেছে পুঁজিবাজারের বিনিয়োগকারী ও সংশ্লিষ্টদের।

এই হতাশার বিপরীতে আলোর স্বপ্ন বুনতে আজ বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশন ও ডিএসই ব্রোকার্স অ্যাসোসিয়েশন বৈঠকে বসছে। মঙ্গলবার বিকেল ৫টায় ডিএসইর মতিঝিল অফিসে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন বিএমবিএ সভাপতি মুহাম্মদ নাসির উদ্দিন চৌধুরী।

তিনি বলেন, পুঁজিবাজারের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে মঙ্গলবার ডিএসইতি বিএমবিএ ও ডিবিএ যৌথভাবে বৈঠকে বসবো। বৈঠকে বাজারের বর্তমান পরিস্থিতিতে করণীয় বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে।

এদিকে ডিএসই গত ৭ কার্যদিবস পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ৬ কার্যদিবসে ২৩৮ পয়েন্ট সূচক কমেছে। এর মধ্যে ১ কার্যদিবসে ৭ পয়েন্ট বেড়েছে। গত ৭ কার্যদিবস আগে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক অবস্থান করছিল ৬ হাজার ৩০৩ পয়েন্টে। আর সোমবার কার্যদিবস শেষে এর অবস্থান দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৫৮ পয়েন্টে।

৭ কার্যদিবস আগে ডিএসইতে তালিকাভুক্ত কোম্পানি মার্কেট ক্যাপিটাল ছিল ৪ লাখ ২৭ হাজার ২৫১ কোটি ১৯ লাখ টাকা। ৭ কার্যদিবস শেষে এর পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৪ লাখ ১৫ হাজার ১৪২ কোটি ২৫ লাখ টাকা। সেই হিসেবে আলোচ্য সময়ে মার্কেট ক্যাপিটাল কমেছে ১২ হাজার ১০৮ কোটি ৯৩ লাখ টাকা।

সোমবার ডিএসইতে মোট ৪০৬ কোটি ১৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩৩৬টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৪০টির, কমেছে ২৫৬টির। আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৪০টি কোম্পানির শেয়ার দর।

ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্য সূচক ৬০ পয়েন্ট কমে ৬ হাজার ৫৭ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ৩৭৬ পয়েন্টে। আর ডিএস৩০ সূচক ১৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ২ হাজার ২২৪ পয়েন্টে।

আর চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ১৭ কোটি ৭১ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৬৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৮ হাজার ৭২৩ পয়েন্টে। লেনদেন হওয়া ২৩২টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৩৪টির, কমেছে ১৬৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৩টির শেয়ার দর।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech