গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগে দেবর-শাশুড়ি গ্রেফতার

  

পিএনএস ডেস্ক : কুমিল্লার দেবিদ্বারে পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামীর পরিবারের নির্যাতনে সাহিদা বেগম নামের এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটে উপজেলার বরকামতা ইউনিয়নের আসরা গ্রামের গাজী বাড়িতে।

ওই ঘটনায় নিহতের ভাই খায়রুল ইসলাম বাদী হয়ে নিহতের স্বামী আবু কাইছার মিয়া (৩০), দেবর শাহ আলম (২৭), শাশুড়ি জামিলা বেগম (৫৫), শ্বশুর মনু মিয়াকে (৬০) অভিযুক্ত করে মঙ্গলবার দেবিদ্বার থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ দেবর ও শাশুড়িকে গ্রেফতারের পর কোর্ট হাজতে চালান করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, নিহত গৃহবধূ সাহিদা বেগম (২১) উপজেলার বরকামতা ইউনিয়নের আসরা গ্রামের গাজী বাড়ির আবু কাউছারের স্ত্রী। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের দাবিসহ নানা কারণে পারিবারিক কলহ লেগে ছিল। সোমবার সাহিদা তার মায়ের সাথে ফোনে কথা বলার সময় জানতে পারেন, ক্যান্সারে আক্রান্ত তার পিতার শারিরীক অবনতি ঘটলে সাহিদাকে শেষবারের মতো দেখে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। সাহিদা মঙ্গলবার সকালে পিতাকে দেখতে আসবে বলেও জানিয়ে দেন।

ওই ফোনালাপ শুনে সাহিদার স্বামী পিতার বাড়িতে যেতে নিষেধ করেন। এনিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে স্বামী তাকে মারধর করেন। এক পর্যায়ে দেবর, ভাসুর, শ্বশুর, শাশুড়িও আরেক দফা মারধর করেন। কথা না শোনায় স্বামী কাউছার আবারো তাকে এলোপাথারী মারধর করে গলা টিপে ধরায় এক পর্যায়ে সোমবার রাতে তার মৃত্যু হয়।

দেবিদ্বার থানার ওসি মো. জহিরুল আনোয়ার বলেন, সুরতহাল রিপোর্ট অনুযায়ী প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। তার শরীরে ও গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট প্রাপ্তির পর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে।

পিএনএসস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech