উজিরপুরে ছাত্রী-শিক্ষকের আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল!

  

পিএনএস ডেস্ক: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সম্প্রতি একটি ভিডিও নিয়ে তুমুল সমালোচনা তৈরি হয়েছে। ভিডিওতে একজন প্রধান শিক্ষককে কয়েকজন ছাত্রীকে নিয়ে কোচিং করাতে দেখা যায়। ভিডিওর মাঝে কয়েকবার ওই শিক্ষককে এক ছাত্রীর গায়ে আপত্তিকরভাবে হাত দিতে দেখা যায়।ওই শিক্ষককে বরখাস্ত করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

নেটিজেনরা ভিডিওটি শেয়ার করে দাবি করেছেন অভিযুক্ত শিক্ষকের নাম মো. নুরুল হক সরদার। তিনি বরিশাল জেলার উজিরপুর উপজেলার সোনার বাংলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ভাইরাল ভিডিওটি ২০১৬ সালের। সেই সময় ভিডিওটি ভাইরালহওয়ার পর সমালোচনার মুখে অভিযুক্ত শিক্ষক মো. নুরুল হক সরদারকে বরখাস্ত করা হয়।

জানা যায়, ওই সময় এক ছাত্রীর সঙ্গে একটি আপত্তিকর ভিডিও ফুটেজ জেলা মহিলা অধিদপ্তরসহ বিভিন্ন দপ্তরে ছড়িয়ে পড়লে মো. নুরুল হক সরদারকে সোনার বাংলা মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে বরখাস্তের জন্য স্থানীয়রা জোর দাবি জানান। এরপর তাকে বরখাস্তও করা হয়।

অনুসন্ধানে জানা যায়, নুরুল হক সরদার এর আগে উজিরপুরের শিকারপুরের জি.জি. মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত অবস্থায় এক ছাত্রীর সাথে অনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ে। তখন ওই ছাত্রীর সাথে তার অবৈধ সম্পর্ক ছিল এই কথা এলাকায় জানাজানি হওয়ায় তিনি ওই ছাত্রীকে বিয়ে করতে বাধ্য হন। এরপর কিছুদিন বাদে ২০১৬ সালে আবার তার কেলেঙ্কারির খবর সামনে আসে চলে আসা।

সম্প্রতি শিক্ষক-ছাত্রীর আপত্তিকর ওই ভিডিওটি ফের ভাইরাল হলে নতুন করে সমালোচনা সৃষ্টি হওয়ার পাশাপাশি চারদিকে নিন্দার ঝড় ওঠে।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন