কৃষি

মহাদেবপুরে ফসল রক্ষায় কাকতাড়ুয়া

  

পিএনএস, নওগাঁ প্রতিনিধি : যাবার পথে কালো বিড়াল অতিক্রম করলে যাত্রা অশুভ হবে। পরীক্ষার আগে ডিম খেলে ফলাফল খারাপ হবে। গ্রামাঞ্চলে এখনো মায়েরা ছোট্ট শিশুর কপালে কালো টিপ এঁকে দেন, যাতে কারো নজর না লাগে। বিজ্ঞানের যুগেও এমন অদ্ভুত বিশ্বাসের লোকের অভাব নেই গ্রামীণ জনপদে। তেমনই এক আত্মবিশ্বাস নিয়ে কৃষকরা ক্ষেতের ফসল বাঁচাতে কাকতাড়ুয়া (মানুষের প্রতীক) ব্যবহার করছে। কৃষকদের বিশ্বাস, কাকতাড়ুয়া স্থাপন করলে ক্ষেতের ফসল দেখে কেউ ঈর্ষা করবে না বা ফসলে কারো নজর লাগবে না। ফসল ভাল হবে। আর মিলবে আশানুরূপ ফসল

নবাবগঞ্জে শ্রাবনেও কাঙ্খিত বৃষ্টি না হওয়ায় ফসলের মাঠে চড়ছে গরু-ছাগল

  

পিএনএস, নবাবগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলা এলাকায় বর্ষা মৌসুমের শ্রাবন মাসেও কাঙ্খিত বৃষ্টি না হওয়ায় আমন ফসলের মাঠে চড়ছে গরু-ছাগল। বৃষ্টির অভাবে কৃষকেরা মাঠে জমি প্রস্তুত করতে পারছে না। তারা জানায় আমন ফসল সময় মত রোপন করা নিয়ে শংকিত। তাদের ভাষায় মাঠে পানি না থাকায় জমি ঠিক করা যাচ্ছে না। এদিকে জমি রোপনে দেরি হওয়ার কারনে বীজের বয়স বেড়ে যাচ্ছে। মাঠে পানি থাকলে এ সময় জমি রোপন করাই এক প্রকার শেষ হয়ে যেত। তবে উপজেলার অনেক এলাকায় কৃষকেরা সুবিধা থাকায় সেচ দেয়ার মাধ্যমে জমি

গরু মোটাতাজা করার পদ্ধতি

  

পিএনএস ডেস্ক : সামনে আসছে কোরবানির ঈদ। তাই গরু মোটাতাজা করার বিষয়টি নিয়ে অনেকেরই আগ্রহ রয়েছে। মোটাতাজা গরু বিক্রি করা লাভজনক। কম সময় ও কম পুঁজিতে গরু মোটাতাজা করার পদ্ধতি রয়েছে। তবে তা সময়মতো করতে হবে। আসুন জেনে নেই সে সম্পর্কেই-মোটাতাজা করার সুবিধা১. অল্প সময়ে (৪-৬ মাস) বেশি মুনাফা অর্জন করা যায়।২. মূলধন বা পুঁজি দ্রুত ফেরত আসে।৩. আর্থিক ক্ষতির ঝুঁকি কমে যায়।৪. খরচের তুলনায় লাভ হয় বেশি।৫. বেকারত্ব ও দরিদ্রতা দূর করা যায়।৬. রোগব্যাধি কম হয়।মোটাতাজা করার সময়বছরের প্রায় সব

বেগুনি পাতা ধান চাষে দুলালী বেগমের বাম্পার ফলন

  

পিএনএস, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) : গত মৌসুমে রামজীবন ইউনিয়নে কৃষি অফিসের তত্ত্বাবধানে নতুন বেগুনি পাতা ধান চাষ করে দুলালী বেগম ভাল ফলন পেয়েছে। ধানটি সম্পর্কে কৃষি অফিস বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করেছে। এই ধানের অন্য বৈশিষ্ট্য দেখার জন্য উপজেলা কৃষি অফিসার স্থানীয় এক চাষীর জমি লিজ নিয়ে আমন মৌসুমেও এই ধান চাষ করার জন্য ইতোমধ্যেই বীজতলা তৈরি করেছেন। চারার বয়স ৩০ দিন হলে জমিতে রোপন করা হবে বলে কৃষি অফিস নিশ্চিত করেছেন। গত বৃহস্পতিবার আমন বীজতলা রোপন ভাল হওয়ায় জেলা প্রশিক্ষণ অফিসার শওকত ওসমান ও

স্মরণকালের ভয়াবহ বিপর্যয়ের মুখে আম ব্যবসায়

  

পিএনএস ডেস্ক : স্মরণকালের সবচেয়ে ভয়াবহ বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম চাষী ও ব্যবসায়ীরা।অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার ব্যাপক লোকসান গুনতে হয়েছে তাদের। কৃষি বিভাগ জানিয়েছে, চলতি মৌসুমে আমের উৎপাদন দ্বিগুণেরও বেশি বেড়েছে, কিন্তু নতুন বাজার সৃষ্টি না হওয়ায় এগুলো বিক্রি হচ্ছে না। সেই সঙ্গে আম সংরক্ষণের সুযোগ না থাকায় অনেক আম পচে নষ্ট হচ্ছে। ফলে এ বিপর্যয় নেমেছে। গত কয়েক বছরে রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের বাইরে বেশ কয়েকটি জেলায় নতুন আমের বাগান গড়ে উঠেছে। সেগুলোতেও ভালো ফলন হচ্ছে।

সুন্দরগঞ্জে আমন বীজতলায় মড়ক

  

পিএনএস, সুন্দরগঞ্জ(গাইবান্ধা) প্রতিনিধি : গাইবান্ধা সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় আমন বীজতলায় মড়ক রোগ দেখা দেওয়ায় চাষীরা আগামী আমন ধান রোপনে হতাশায় পরেছেন। জানা গেছে, কৃষক আমন ধান রোপনের জন্য বীজতলা তৈরী করে বিভিন্ন জাতের আমন ধান বীজ বপন করে থাকেন। বপনের ২০-২১ দিনের মধ্যে চরাগুলো উত্তোলণ করে জমিতে রোপন করা হয়। এদিকে বীজতলা গুলোতে বীজ বপনের ১০-১২ দিনের মধ্যে চারাগুলো বিবর্ণ হয়ে বিনষ্ট হচ্ছে। কৃষক পচন ঠেকাতে বিভিন্ন বালাই নাশক ব্যবহার করেও কোন সুফল পাচ্ছেন না। সর্বানন্দ ইউনিয়নের বাছহাটি গ্রামের কৃষক

বাগেরহাটে নতুন সুগন্ধী আউশ ধানের বাম্পার ফলন

  

পিএনএস, বাগেরহাট প্রতিনিধি : বাগেরহাটে আউশ মৌসুমে নতুন সুগন্ধী আউশ জাতের এক ধরনের নতুন জাত এ ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে।আউশ ধানের মৌসুমে আউশের পরিবর্তে জৈব পদ্ধতিতে সুগন্ধী জাতের এই ধানের ভাল ফলন হওয়ায় চাষি ও কৃষি বিভাগ খুশি হয়েছে। কৃষকরা এখন বিলুপ্তি হওয়া আউশের মৌসুমে ব্যাপকভাবে এ ধানের চাষ করার চিন্তা করছেন।কৃষি বিভাগ চায় এ সুগন্ধী জাতের ধান ছড়িয়ে পড়–ক সারা দেশে।মৌসুমে এ অঞ্চলে এক সময় ব্যাপক আউশ ধানের চাষ হত। কিন্তু জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে আউশের ফলন কমে যাওয়ায় কৃষকরা আউশ ধান চাষ বন্ধ করে দেয়।

মহাদেবপুরে কমেছে পাট চাষ

  

পিএনএস, নওগাঁ প্রতিনিধি : নওগাঁর মহাদেবপুরে পাট চাষে আগ্রহ হারাচ্ছে কৃষক। সোনালী আঁশ হিসেবে খ্যাত পাট চাষ এখন অনিহার পথে। জনসংখ্যা বৃদ্ধির সাথে সাথে কৃষি জমি অকৃষিতে পরিণত হওয়া, স্বল্প সময়ে জমিতে অধিক ফসল ফলানোর প্রবণতা, পাট পচনের পানি সংকটসহ বিভিন্ন কারণে পাট চাষ যেন এখন কৃষকের অবহেলায় পরিণত হয়েছে। প্রতি বছরই পাট চাষের জমি কিছু কিছু করে কমছে। এবার ভরা মৌসুমেও পাট মিলেনি উপজেলার হাট বাজার গুলোতে। ন্যায্যমূল্য না পাওয়ায় অনেক চাষী পাট চাষ বন্ধ করে দিয়েছে। কৃষি বিভাগের তথ্য অনুযায়ী প্রতি বছরই

দুঃশ্চিন্তায় আম চাষিরা

  

পিএনএস ডেস্ক: ‘আমার বাগানে এবার আমের বাম্পার ফলন হয়েছে। কিন্তু বাজারে আমের দাম নেই। কপালে যে কী আছে?’ নিজের দুঃশ্চিন্তার কথা এভাবেই বলছিলেন হরিণাকুন্ড উপজেলার আম চাষি আব্দুল কালাম।দক্ষিণাঞ্চলের সবচেয়ে বড় কোটচাঁদপুর আমের পাইকারী হাট ঘুরে জানা যায়, গোপাল ভোগ ৭শ থেকে ৮শ টাকা, হিম সাগর এক হাজার টাকা থেকে ১১শ টাকা ও ল্যাংড়া ১১শ টাকা থেকে ১২শ টাকা মণ দরে বিক্রি হচ্ছে। আর দেশি আম প্রতি মণ ৫শ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।ঝিনাইদহ জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফর সূত্রে জানা যায়, সদর উপজেলা, হরিণাকুন্ড,

চিরিরবন্দরে ব্রি-ধান-৫০ চাষে কৃষকের সাফল্য

  

পিএনএস, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে নতুন জাতের সুগন্ধী ধান ব্রি-ধান-৫০ চাষ করে ভালো ফলন অর্জন করায় অধিকাংশ কৃষকদের মাঝে এ ধান চাষে ব্যাপক আগ্রহ জাগিয়ে তুলেছে। ফলে আগামীতে এ ধানের চাষ ব্যাপক হারে হবে বলে আশা করছেন কৃষি সম্প্রসারন বিভাগ। উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানা গেছে, ২০১৭ সাল হতে পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউ-েশন (পিকেএসএফ) এর আর্থিক সহায়তায় বেসরকারী সংস্থা গ্রাম বিকাশ কেন্দ্র (জিবিকে) সুগন্ধি ধান ভ্যালু চেইন প্রকল্প বাস্তবায়ন করে। সে লক্ষ্যে প্রকল্পের আওতায় কৃষি

Developed by Diligent InfoTech