বেসিক ব্যাংকের সার্চ কমিটি আগামী সপ্তাহে

  

পিএনএস ডেস্ক: বেসিক ব্যাংকের নতুন এমডির (ব্যবস্থাপনা পরিচালক) খোঁজে আগামী সপ্তাহের মধ্যে সার্চ কমিটি গঠন করা হবে বলে জানিয়েছেন ব্যাংকটির চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন এ মজিদ। তিনি বলেন, সার্চ কমিটি গঠিত হলেই এমডি নিয়োগের জন্য আবেদনপত্র আহ্বান করা হবে। বর্তমান এমডি ইস্তফা দিলেও আগামী তিন মাস তিনি অফিস করবেন।

বুধবার সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।
চেয়ারম্যান বলেন, ব্যাংকটি একসময় খারাপ অবস্থায় ছিল। কিন্তু পরবর্তীতে এটি ভালো করতে থাকে। তবে মিড লেভেলের কর্মকর্তাদের অনীহার কারণে এ ভালোর প্রবাহটা অব্যাহত রাখা যাচ্ছে না। বোর্ড আছে, বোর্ড পলিসি গ্রহণ করে কিন্তু সেসব পলিসি বাস্তবায়িত হয় না।

উল্লেখ্য, দুর্নীতি ও অনিয়মে জর্জরিত ব্যাংকটির এমডি মুহাম্মদ আউয়াল খান গত ১৪ আগস্ট এই পদ থেকে ইস্তফা দেন। এরপর থেকে বেসিক ব্যাংকের এমডি পদটি খালি রয়েছে। আউয়াল খান তিন মাসের সময় দিয়ে এই পদ থেকে সরে দাঁড়ান। তার পদত্যাগপত্র গত ৩০ আগস্ট বেসিক ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদে উত্থাপন করা হয়। কিন্তু পদত্যাগপত্রটি গ্রহণ না করে বলা হয়, নতুন এমডি নিয়োগ দেয়ার সাথে সাথে তার পদত্যাগপত্র গৃহীত হয়েছে বলে ধরে নেয়া হবে।

জানা গেছে, বিভিন্ন সমস্যায় জর্জরিত বেসিক ব্যাংকের এমডি পদে যোগদানের জন্য আগ্রহী কাউকে পাওয়া যায়নি। দুই-একজনের সাথে এ বিষয়ে কথাও বলা হয়েছে। কিন্তু তারা এই পরিস্থিতিতে এই দায়িত্ব পালন করতে রাজি নয়। তবে নতুন এমডি নিয়োগ দেয়ার চেষ্টা চালিয়া যাওয়া হচ্ছে।

এদিকে আলোচিত বেসিক ব্যাংকের এমডির পদত্যাগের বিষয়ে এই ব্যাংকে নানা কথা চালু রয়েছে। ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ঋণ অনুমোদন ও কিছু ঋণ পুনঃতফসিলের মতো ব্যাংক ব্যবস্থাপনার গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন বিষয়ে পরিচালনা পর্ষদের সঙ্গে ঐকমত্যে পৌঁছতে না পেরে আউয়াল খান পদত্যাগ করেছেন।

আরেকটি সূত্র জানিয়েছে, সুদহার কমে যাওয়া, খেলাপি ঋণ বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন কারণে চলতি বছর বেসিক ব্যাংক ৮০ থেকে ৯০ কোটি টাকা লোকসান করবে এমন পরিস্থিতি বুঝেই সমালোচনা এড়াতে তিনি আগেভাগে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নিলেন।
আউয়াল খান এর আগে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের এমডির দায়িত্ব পালন করেন। তিনি রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকেরও এমডি ছিলেন। আউয়াল খান ২০১৭ সালের ১ নভেম্বর বেসিক ব্যাংকের এমডি হিসেবে যোগ দেন। তার মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল ২০১৯ সালের ১ নভেম্বর।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech