‘ক্ষমতার রাজনীতি নয় জনগণের ভালবাসা অর্জনই সর্বোত্তম রাজনীতি’

  

পিএনএস (আক্তারুজ্জামান বাচ্চু) : আমাদের দেশটি আয়তনে ছোট হলেও এদেশের মানুষকে ছোট করে দেখার কোনও সুযোগ নেই। এদেশের মানুষ স্বাধীনতার জন্য, ভাষার জন্য রক্ত দিয়েছে ; তবুও মাথা নত করেনি ।স্বাধীনতার ৪৮ বছর হয়েছে । ইতিমধ্যে পৃথিবীতে অনেক প্রযুক্তিগত উন্নতি, আর্থ সামাজিক ও রাজনৈতিক পট পরিবর্তন হলেও স্বাধীন দেশটিতে একনায়কতান্ত্রিক রাজনীতি ও দূর্নীতিগ্রস্ত রাষ্ট্রযন্ত্রের কারণে আমরা ক্রমান্বয়েই পিছিয়ে পড়ছি ।

রাষ্ট্র আজ ভয়াবহভাবে একনায়কবাদী, বাক স্বাধীনতা হরণকারী ও সত্যকে নিষ্ঠুরভাবে দমনকারীর ভূমিকায় আবির্ভূত হয়েছে। দেশের অর্থনীতি আজ নিয়ন্ত্রিত হচ্ছে মুষ্টিমেয় সম্পদ লুন্ঠনকারী ভোগবাদীদের হাতে । কপটতা ও শঠতার সাথে তারা রাতকে দিন আর দিনকে রাত বানানোর চেষ্টা করছে। তারা মানুষকে নিয়ন্ত্রনের জন্য ইতিহাস নিয়ন্ত্রনের চেষ্টা করছে।

অসৎ রাজনীতিবিদ আর তাদের তল্পিবাহক বুদ্ধিজীবিরা জনগণকে বুঝাতে চেষ্টা করছে যে দু’য়ে দু’য়ে পাঁচ । অবস্থা এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে এদেশটির প্রধানমন্ত্রীকেই কিনা বিদেশে কেউ হোটেল ভাড়া দিতে চায় না! এটি খোদ প্রধানমন্ত্রী তার এক ঘনিষ্ঠজনের সাথে ফোনালাপে বলেছেন ।

কিছুদিন আগেই লন্ডনে আমার এক ঘনিষ্ঠজন সপরিবারে বেড়াতে গিয়েছিলেন। তার কিন্তু হোটেল ভাড়া পেতে কোনো সমস্যা হয়নি। অথচ রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ ক্ষমতাসীন ব্যক্তিকে যখন কেউ হোটেল ভাড়া দিতে চায় না! তখন বুঝতে হবে ‘ডাল মে কুচ কালা হে!’ মিড নাইট নির্বাচনে ক্ষমতাসীন প্রধানমন্ত্রীকে হোটেল ভাড়া দিয়ে হয়ত কেউ বিড়ম্বনায় পড়তে চান না! প্রধানমন্ত্রী জাতি হিসাবে আমাদেরকে বড় লজ্জায় ফেলে দিলেন বৈকি!

তিনি ফোনালাপে এও বলেছেন যে ,’বিএনপিকে বলে দিয়েন যে তারেক ( বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান) যদি বেশী বাড়াবাড়ি করে আমার সাথে তাহলে তার মা’কে ( খালেদা জিয়া) বের হতে দেয়া হবে না! খালেদা জিয়ার মুক্তি নিয়ে বিএনপি এতদিন যে অভিযোগগুলো করে আসছিল যে বেগম খালেদা জিয়ার জামিন সরকারই আটকে রেখেছে , এক্ষেত্রে বিচার বিভাগকে ঢাল হিসাবে ব্যবহার করা হয়েছে! প্রধানমন্ত্রীর ফোনালাপ তা আরও উল্কে দেয়াই স্বাভাবিক । গ্রীক দার্শনিক এরিস্টোটল বলেছেন, ‘ উৎকৃষ্ট জীবনলাভের জন্য কোনও সমাজের সংগ্রামের নামই রাজনীতি।’ বেগম খালেদা জিয়ার অপরাধ তিনি দেশের মানুষকে উৎকৃষ্ট জীবনদানের জন্য, দেশের গণতন্ত্রায়নের জন্য সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছেন। এ সংগ্রামের অংশ হিসাবেই আপোস না করে নিজে নাজিম উদ্দিন রোড়ের নিকৃষ্ট কারাগারকেই বেছে নিয়েছেন!

মহাবীর আলেকজান্ডার তার অনুসারীদের ডেকে বলেছিলেন যে আমার মৃত্যুর পর শব যাত্রার সময় আমার হাত দু’টো কফিনের বাইরে বের করে রেখো। অনুসারীরা কারণ জানতে চাইলে আলেকজান্ডার বলেছিলেন যে , কফিনের বাইরে হাত বের করে রাখার মাধ্যমে পৃথিবীর মানুষকে এটি জানাতে চাই যে আমি পৃথিবীতে খালি হাতে এসেছি এবং খালি হাতেই ফিরে যাচ্ছি । যেমনটি শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান করেছিলেন।

প্রধানমন্ত্রীর ফোনালাপ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কল্যাণে সারা দুনিয়া জেনে গেছে ! ২০১৪ সালের ৫ ই জানুয়ারী বিতর্কিত নির্বাচনের পর ৫ বছর ক্ষমতায় থাকার পর ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনের নামে যা হয়েছে , এতে নির্বাচনী ব্যবস্থার উপর জনগণ আস্থা হারিয়ে ফেলেছে - যার প্রতিফলন উপজেলা নির্বাচনে দেখা গেছে । দেশের মানুষকে ‘দু’য়ে দু’য়ে পাঁচ ‘ বুঝানোর চেষ্টা করে কোনও লাভ নেই। প্রতিহিংসা ও ঘৃণার রাজনীতি পরিহার করে দেশে একটি সুস্থ , সুন্দর গণতান্ত্রিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনুন। বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিন, গণতন্ত্রকে মুক্তি দিন, মানুষের অধিকারগুলো ফিরিয়ে দিন, ন্যায় বিচার ফিরিয়ে দিন, রাতে নয় দিনে ভোট দিতে দিন। জাতীয় ঐক্যের মাধ্যমে একটি মানবিক রাষ্ট্র গড়ে তুলুন । তবেই আমরা সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাবো । অস্রের শক্তিই একমাত্র শক্তি নয়! ক্ষমতার জোরে অনেক কিছুই হরণ করা যায়, কিন্তু মানুষের শ্রদ্ধা অর্জন করা যায় খুব কম! তাই শুধু ক্ষমতা আকড়ে থাকার রাজনীতি নয় , জনগণের ভালবাসা অর্জনই সর্বোত্তম রাজনীতি।

লেখক: আক্তারুজ্জামান বাচ্চু; সাবেক দপ্তর সম্পাদক সেচ্ছাসেবকদল কেন্দ্রীয় কমিটি।
বি. দ্র. উল্লিখিত লেখা এবং এর প্রতিটি বক্তব্য, মতামত ও মন্তব্য লেখকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য পিএনএস কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech