শেষ ম্যাচেও অসহায় আত্মসমর্পণ প্রোটিয়াদের

  

পিএনএস ডেস্ক: বিরাট কোহলি তার ক্যারিয়ার জীবনের ৩৫তম সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন। তার ব্যাটিং নৈপূণ্যের সুবাদেই দক্ষিণ আফ্রিকার সাথে চলা সিরিজের শেষ ম্যাচও দুর্দান্ত জয় তুলে নিয়েছে ভারত।

সিরিজ জয় আগেই নিশ্চিত করেছে ভারত। এবার ছিল ব্যবধান বাড়ানোর পালা। সেই সূত্রে চলমান সিরিজে প্রোটিয়াদের বিধ্বস্ত করে ছয়টি ম্যাচের মধ্যে পাঁচটিতেই জয় তুলে নিয়েছে বিরাট বাহিনী। শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে ভারতের কাছে অসহায় আত্মসমর্পণ করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

দক্ষিণ আফ্রিকার করা ২০৪ রানের জবাবে খেলতে নেমে দানবীয় ইনিংস খেলেছেন ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ওয়ানডেতে নিজের দাপটের জানান দিয়েছেন ৩৫তম সেঞ্চুরি তুলে। ৮২ বলে তুলে নিয়েছেন সেঞ্চুরি। দলীয় ৮০ রানে শিখর ধাওয়ানের বিদায়ের পর তৃতীয় উইকেটে আজিঙ্কা রাহানের সঙ্গে ১২৬ রানের জুটি গড়েন কোহলি। কোহলি অপরাজিত থাকেন ১২৯ রানে। দানবীয় ৯৬ বলের এই ইনিংসে ছিল ১৯টি চার ও ২টি ছয়। এ ছাড়া ৩৪ রানে অপরাজিত ছিলেন রাহানে। ৩২.১ ওভারে চার মেরে নিজস্ব ভঙ্গিতে ম্যাচ শেষ করেন ভারতীয় অধিনায়ক।

এর আগে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নামে দক্ষিণ আফ্রিকা। সেঞ্চুরিয়নে ব্যাটিং কন্ডিশনেও কোনও প্রতিরোধ ছিল না প্রোটিয়াদের ব্যাটিংয়ে। সিরিজের প্রথম ম্যাচে খেলতে নামা শারদুল ঠাকুরের বোলিং নৈপুণ্যে ৪৬.৫ ওভারে ২০৪ রানে অলআউট হয় প্রোটিয়ারা। সর্বোচ্চ ৫৪ রান আসে জোন্ডোর ব্যাট থেকে। তার আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে এক পর্যায়ে চিন্তার ভাঁজ পড়ে গিয়েছিল ভারতীয় শিবিরে। তবে অপর প্রান্তে কেউ দাঁড়াতে পারেনি বলে বেশিক্ষণ থিতু হননি জোন্ডো। চাহালের বলে দলীয় ১৫১ রানে বিদায় নিলে আরও দ্রুত শেষ হয় স্বাগতিকদের ইনিংস। শেষ দিকে মরনে মরকেল ২০ ও ফেহলুকোয়ায়ো ৩৪ রান করে পুঁজি বাড়াতে সহয়তা করেন।

ভারতীয়দের হয়ে শারদুল ঠাকুর ৫২ রানে সর্বোচ্চ ৪ উইকেট নেন। দুটি করে উইকেট নেন জাসপ্রিত বুমরাহ ও যুবেন্দ্র চাহাল।

ম্যাচসেরা ও সিরিজসেরা হয়েছেন বিরাট কোহলি।


পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech