বসতঘরে কালকেউটে, সঙ্গে ১৪টি বাচ্চা

  

পিএনএস ডেস্ক : সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার একটি বসতবাড়ি থেকে বড় আকারের একটি কালকেউটে সাপ ধরা হয়েছে। আজ শুক্রবার সকালে সাপটি ধরা হয়। এর আগে একই বাড়ি থেকে পাওয়া সাপের ১৪টি বাচ্চাকে মেরে ফেলেছেন স্থানীয় লোকজন।

উপজেলার বুড়িগোয়ালিনী ইউনিয়নের হরপ্রসাদ মণ্ডল নামের এক ব্যক্তির বাড়ি থেকে সাপটি ধরা হয়েছে। তিনি বলেন, গত বুধবার দুপুরের দিকে ঘরের পাশে একটি সাপের বাচ্চা দেখতে পান তিনি। কিন্তু সেদিন মনসা পূজা হওয়ায় সেটিকে মারেননি তাঁরা। আজ শুক্রবার সকাল আটটার দিকে ঘরের ভেতর থেকে তিনটি কালকেউটে সাপের বাচ্চা বাইরে আসতে দেখেন। সঙ্গে সঙ্গে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় বাচ্চা তিনটিকে মেরে ফেলা হয়। পরে মাটির ঘরের মেঝে খোঁড়ার একপর্যায়ে একে একে আরও ১১টি বাচ্চা বের হয়ে আসে। স্থানীয় লোকজন সেগুলোকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে মেরে ফেলেন। এ সময় ঘরের ভেতর একটি গর্তের মধ্যে বড় আকারের একটি কালকেউটে সাপের অস্তিত্ব টের পান তাঁরা। সাপটিকে না মেরে বেদে সম্প্রদায়ের লোকদের সহায়তায় সেটিকে ধরা হয়। ঘরের ভেতর আরেকটি গর্তে আরও ২১টি ডিম পাওয়া যায় বলেও জানান তিনি।

শ্যামনগর উপজেলার বুড়িগোয়ালিনী ইউপির চেয়ারম্যান ভবতোষ কুমার মণ্ডল বলেন, ঘটনা শুনে তিনি হরপ্রসাদ মণ্ডলের বাড়িতে যান। কিন্তু তিনি পৌঁছানোর আগেই স্থানীয় লোকজন সাপের ১৪টি বাচ্চাকে মেরে ফেলেন। পরে বেদে সম্প্রদায়ের লোকদের ডেকে এনে বড় কালকেউটে সাপটিকে ধরা হয়।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech