আন্তর্জাতিক

এশিয়ার বৃহত্তম বস্তিতে করোনা হানায় বৃদ্ধের মৃত্যু, শঙ্কায় মুম্বাই

  

পিএনএস ডেস্ক: আশঙ্কা পরিণত হল বাস্তব বিপর্যয়ে। এশিয়ার বৃহত্তম বস্তি ভারতের মুম্বাইয়ের ধারাভিতে হানা দিল করোনাভাইরাস। সংক্রমণের জেরে মারা গেলেন ৫৬ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ।গত মঙ্গলবার ধারাভিবাসী ওই বৃদ্ধকে প্রথমে সিওন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর গতকাল বুধবার তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে উন্নত চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত হয় কস্তুরবা গান্ধী হাসপাতালে। কিন্তু অ্যাম্বুল্যান্সে তোলার আগে সিওন হাসপাতালেই তার মৃত্যু হয়।এদিকে, মুম্বাইয়ের বিশালকায় ধারাভি বস্তির বাসিন্দা ওই বৃদ্ধের নমুনায়

করোনায় মৃত ব্যক্তি থেকে করোনা ছড়ায় না: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

  

পিএনএস ডেস্ক: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, কভিড-১৯ করোনাভাইরাসে মৃত্যু হওয়া ব্যক্তির শরীর থেকে অন্য কারও সংক্রমণের প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তবে মৃতদেহ সৎকারের সময় হাতের সুরক্ষা ও ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম ব্যবহারের নির্দেশনা দিয়েছে সংস্থাটি। গত ২৪ মার্চ Infection Prevention and Control for the safe management of a dead body in the context of COVID-19 শিরোনামের একটি নিবন্ধে তারা এসব তথ্য জানিয়েছে। ওই নিবন্ধে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আরও বলেছে, সংক্রামক ব্যাধিতে মৃতদের পুড়িয়ে ফেলা উচিত- এমন

করোনাভাইরাস: আমেরিকায় একদিনে রেকর্ড ১,০৪১ জনের মৃত্যু

  

পিএনএস ডেস্ক: চীন-ইতালি-স্পেনকে মৃত্যুপুরীতে পরিণত করার পর প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের ছোবলে এবার লাশের মিছিল দীর্ঘ হচ্ছে আমেরিকায়। প্রতিদিনই মারা যাচ্ছে বহু সংখ্যক মানুষ। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যাও।এর আগে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর এই দেশটিতে একদিনে রেকর্ড ৮৩০ জনের মৃত্যু হয়েছিল। গত ২৪ ঘণ্টায় সেটি ছাড়িয়ে মারা গেছে ১,০৪১ জন, যা দেশটিতে করোনাভাইরাস আক্রমণের পর একদিনে সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর ঘটনা।একদিনে ১,০৪১ জনের মৃত্যু হওয়ায় দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৫৪ জনে। এই

ভারতে করোনা আক্রান্ত বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে

  

পিএনএস ডেস্ক: সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের সরকারি সমস্ত চেষ্টা সত্ত্বেও ভারতে ক্রমশ বেড়েই চলেছে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। সর্বশেষ সরকারি পরিসংখ্যান অনুসারে, বুধবার রাত সাড়ে ৭টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় এ দেশে আরো ৪৩৭ জন করোনা আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গেছে। যার ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৮৩৪ জন। এর মধ্যে ১৪৪ জন সম্পূর্ণ হয়ে উঠেছেন। এ দিকে, ৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে।যদিও সরকারি পরিসংখ্যানের সঙ্গে বেসরকারি তথ্যের বেশ কিছুটা পার্থক্য দেখা দিয়েছে। বেসরকারি মতে, বুধবার রাত ১১টা ৪০ মিনিট

করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ৪৬ হাজার পার

  

পিএনএস ডেস্ক: বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসে ৪৬ হাজারেও বেশি মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে। আক্রান্ত হয়েছে ৯ লাখেরও বেশি।বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) ওয়ার্ল্ডওমিটার এ তথ্য জানিয়েছে।আক্রান্তের সংখ্যায় অনেক আগেই চীনকে ছাড়িয়ে গেছে যুক্তরাষ্ট্র। মৃত্যুসংখ্যাতেও বহুদূর এগিয়ে গেছে দেশটি। বুধবার দেশটিতে করোনা আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন ৯০৮ জন। এখন পর্যন্ত এটাই যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। এ নিয়ে সেখানে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে চার হাজারেরও বেশি।মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের

২৫-৫০ শতাংশ করোনা রোগীর উপসর্গ নেই, সংক্রমণ হচ্ছে অজান্তে

  

পিএনএস ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে দ্রুত বাড়ছে করোনাভাইরাস সংক্রমণ। এতে রোজই আক্রান্ত ও মারা যাচ্ছেন হাজার হাজার মানুষ। সাধারণত জ্বর, সর্দি-কাশি ও শ্বাসকষ্টকে করোনার উপসর্গ বলে মনে করা হচ্ছে। তবে আশঙ্কার কথা হচ্ছে, সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনে জানা গেছে, যুক্তরাষ্ট্র ও আইসল্যান্ডে শনাক্ত হওয়া করোনা আক্রান্তদের প্রায় অর্ধেকের শরীরেই কোনো ধরনের উপসর্গ দেখা যায়নি। আইসল্যান্ডে করোনা সংক্রমণের ডেটা বিশ্লেষণ করে গবেষকরা জানিয়েছেন, দেশটিতে আক্রান্তদের প্রায় অর্ধেকই উপসর্গহীন।যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজ

এক দিনে যুক্তরাজ্যে আরও মৃত্যু ৫৬৩

  

পিএনএস ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে মহামারি আকার ধারণ করা প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) গত ২৪ ঘণ্টায় যুক্তরাজ্যে নতুন করে আরও ৫৬৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়ালো ২ হাজার ৩৫২ জনে।বুধবার (০১ এপ্রিল) আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটার।ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ২৯ হাজার ৪৩৪ জন। চিকিৎসাধীন আছেন ২৬ হাজার ৯৮৭ জন। চিকিৎসাধীন ২৬ হাজার ৯৮৭ জনের মধ্যে প্রাথমিক পর্যায়ে

'করোনার সঙ্গে যুদ্ধ করুন, আমাদের সঙ্গে নয়'

  

পিএনএস ডেস্ক: ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডক্টর মোহাম্মাদ জাভেদ জারিফ মার্কিন প্রশাসনকে ইঙ্গিত করে বলেছেন, করোনাভাইরাসের সঙ্গে যুদ্ধ করুন, আমাদের সঙ্গে নয়।কোমারসান্ট নামের একটি রুশ দৈনিকে লেখা এক প্রবন্ধে তিনি ওই আহ্বান জানিয়েছেন। এতে তিনি আরও লিখেছেন, বসে থেকে মার্কিন সরকারের মোড়লীপনা দেখার দিন শেষ হয়ে গেছে।ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মার্কিন সরকারের অর্থনৈতিক সন্ত্রাস এবং স্বাস্থ্য ও ওষুধ নিয়ে রাজনীতি বন্ধ করতে বিশ্ব-সমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার

এক সপ্তাহে পুরো পরিবার শেষ

  

পিএনএস ডেস্ক: কিছুদিন আগেও স্ত্রী-সন্তান নিয়ে সুখের সংসার ছিল আলফ্রেদো বারতুচ্চির। কিন্তু মাত্র দু’সপ্তাহেই শেষ হয়ে গেল সব। কয়েকদিনের ব্যবধানে একে একে না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন সবাই।জানা যায়, ইতালিতে করোনা সংক্রমণের হটস্পট লোম্বার্দির ভোঘেরা শহরে থাকত পরিবারটি। করোনা আক্রান্ত হয়ে গত ২৭ মার্চ প্রথমে মারা যান ৮৬ বছর বয়সী আলফ্রেদো। এর কিছুদিনের মধ্যেই মারা যান তার দুই ছেলে দানিয়েল (৫৪) ও ক্লদিও (৪৬)। মাত্র ১০ দিন আগেই অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন তারা।সবশেষ, ১ এপ্রিল মৃতের তালিকায় নাম

অবৈধ অভিবাসীদের ক্ষমা করেছে কুয়েত

  

পিএনএস ডেস্ক: কুয়েত সরকার সে দেশের অবৈধ অভিবাসীদের জন্য সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করেছে। সংবাদ সংস্থা সূত্রে কুয়েত জানায়, দেশটিতে বর্তমানে বিভিন্ন দেশের এক লাখেরও বেশি অবৈধ অভিবাসী রয়েছে।১ এপ্রিল থেকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত দেশটিতে অবৈধ অভিবাসীরা কোনো প্রকার জেল-জরিমানা ছাড়া দেশে যেতে পারবে। নতুন ভিসা নিয়ে পুনরায় কুয়েতে প্রবেশ করতে পারবে তারা।এর মধ্যে কারও নামে যদি কুয়েত ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা অথবা ফৌজদারি মামলা থাকে তারা এ সুবিধা পাবে না বা সাধারণ ক্ষমার আওতায় আসবে না।করোনাভাইরাসের বর্তমান