কবর দেখলে মুসলিম নারীদের কী করণীয়?

  

পিএনএস ডেস্ক : পরম করুণাময় আল্লাহতায়ালা কবর জিয়ারতকে সুন্নত আমল করে দিয়েছে। কারণ, কবর জিয়ারতের মধ্য দিয়ে মন নরম হয়, আখিরাতের স্মরণ আসে, দুনিয়ার সম্পদ-খ্যাতি ও ক্ষমতার মোহ হ্রাস পায়।

পুরুষের মতো নারীরাও কি কবর জিয়ারত করতে পারবেন? এ নিয়ে ইসলামী বিশ্লেষকদের মধ্যে বিভ্রান্তি রয়েছে। এ নিয়ে দ্বিমতও রয়েছে। যেমন ইমাম তিরমিজি (রহ.) তার প্রসিদ্ধ সুনানে (১০৫৬) হযরত আবু হুরায়রা (রা.) থেকে হাদিস বর্ণনা করেছে, ‘মহানবী কবর জিয়ারতকারী নারীদের ওপর অভিশাপ দিয়েছেন।’

ঠিক তার বিপরীত বর্ণনা পাওয়া যায় মুস্তাদরাকে হাকিমে। সেখানে উল্লেখ করা হয়েছে, হযরত আলী (রা.) বর্ণনা করেছেন, নবী কন্যা হযরত ফাতেমা (রা.) প্রতি জুমাবারে তার চাচা হজরত হামজা (রা.) এর কবর জিয়ারত করতেন। তিনি সেখানে নামাজ পড়তেন ও কান্নাকাটি করতেন। -মুস্তাদরাকে হাকিম (১৩৯৬)

কিন্তু কোনও মুসলিম নারী যদি কবরের পাশ দিয়ে হেঁটে যান তবে তার করণীয় কী?

যদি কোনও মুসলিম নারী কবরের পাশ দিয়ে হেঁটে যান তবে কবরবাসীকে সালাম দেয়ার কোনও বিধান কোরান কিংবা হাদিসে সাব্যস্ত হয়নি। তবে যদি ওই নারী কবরস্থানে যান তবে কবরবাসীকে তিনি সালাম জানাতে পারেন।

এ নিয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ মাসালা হচ্ছে- কেউ যদি কবরের সামনে দিয়ে গাড়িতে চড়ে যান তবে তাকে কবরবাসীর জন্য সালাম দেয়ার প্রয়োজন নেই।

রাসূল (সা.) কবরবাসীর জন্য যে দোয়াগুলো শিক্ষা দিয়েছেন, সেগুলো একজন ব্যক্তি যখন শুধু কবর জিয়ারের জন্য যাবেন তখনই পড়বেন। রাস্তা অতিক্রম কিংবা কবরের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় না। বরং ওই ব্যক্তি কবরের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় কবরবাসীর কথা স্মরণ করে তাদের জন্য দোয়া করতে পারেন।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech