যেভাবে অ্যাপলের সঙ্গী হলো অ্যামাজন!

  

পিএনএস ডেস্ক : ট্রিলিয়ন ডলারের ক্লাবে নতুন সঙ্গী পেল টেক জায়ান্ট অ্যাপল। ই-কমার্স জায়ান্ট অ্যামাজন হলো এ ক্লাবের দ্বিতীয় সদস্য । রিটেইল ও ক্লাউড কম্পিউটিং উভয় খাতেই দ্রুত প্রসারের কারণে গত এক বছরের মধ্যে কোম্পানিটির শেয়ারদর দ্বিগুণেরও বেশি বেড়েছে।

আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবরে গত মঙ্গলবার (৬ সে্প্টেম্বর) রাতে বলা হয়েছে, অ্যামাজনের বর্তমান বাজারমূল্য এক ট্রিলিয়ন (এক হাজার বিলিয়ন) ডলার। চলতি বছরের আগস্টে ১ ট্রিলিয়ন ডলার বাজারমূল্যের মাইলফলক অর্জন করে অ্যাপল।

১৯৯৪ সালে প্রতিষ্ঠিত অ্যামাজন এখন বিশ্বের বৃহত্তম অনলাইন রিটেইল কোম্পানি। অ্যামাজনের মোট কর্মীসংখ্যা ৫ লাখ ৭৫ হাজার। এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জেফ বেজোস বিশ্বের শীর্ষ ধনী ব্যক্তি, যার মোট সম্পদের পরিমাণ ১৬ হাজার কোটি ডলার। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার ই-কমার্স জায়ান্টটির শেয়ারদর প্রায় ২ শতাংশ বেড়ে দাঁড়ায় ২ হাজার ৫০ ডলার।

তবে দিনের সর্বশেষ লেনদেনে এ শেয়ারদর কিছুটা কমে ২ হাজার ৩৯ ডলার হয়, যা মাইলফলকসীমা ২ হাজার ৫০ ডলার ২৭ সেন্টের তুলনায় অল্প কিছু কম। চলতি বছর অ্যামাজনের সব ধরনের শেয়ারের দাম বেড়েছে। রিটেইল, ক্লাউড, মিডিয়া, কনজিউমার- প্রতিটি ক্ষেত্রে শেয়ারের দাম বেড়েছে প্রায় ৬৫ শতাংশ। এদিকে কয়েকদিন আগে অনলাইন ফার্মেসি পিলপ্যাক কিনে নিয়েছে অ্যাপল। ফলে স্বাস্থ্য সেবা (হেলথ কেয়ার) ক্ষেত্রটিতেও অ্যামাজন প্রভাব ফেলবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিশ্লেষকদের পূর্বাভাস অনুযায়ী, এ বছর অ্যামাজনের বিক্রি বাড়বে ৩২ শতাংশ, যা থেকে আয় হবে ২৬৫ বিলিয়ন ডলার। এর ফলে প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার প্রতি আয় বেড়ে তিনগুণ হবে। অবশ্য অ্যাপলকে অ্যামাজন ছাড়িয়ে যাবে কিনা এটা নিশ্চিতভাবে বলতে পারছেন না ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের বিশ্লেষকরা।সূত্র- বিবিসি।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech