কুলাউড়ায় বিয়েতে 'না' বলায় নির্যাতন, লাশ হলো নাবালিকা

  

পিএনএস ডেস্ক : গুলশানা বেগমের বয়স ১৭। অথচ তার পরিবার বিয়ের জন্য চাপাচাপি করছিল, একপর্যায়ে নির্যাতনও। এই পরিস্থিতিতে বুধবার দুপুর ২টার দিকে নিজের ঘরে ফাঁস লাগানো অবস্থায় পাওয়া যায় গুলশানাকে। মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার বরমচাল ইউনিয়নের আলীনগর গ্রামে ঘটে এ ঘটনা। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে ওই নাবালিকার লাশ উদ্ধার করেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এক মাস ধরে পাশের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার ঘিলাছড়া গ্রামের এক ব্যক্তির সঙ্গে বিয়ের কথাবার্তা চালাচ্ছিল গুলশানার পরিবার। একপর্যায়ে মেয়ের পরিবারের লোকজন জানতে পারে ওই ব্যক্তি নেশাগ্রস্ত। এতে গুলশানার বাবা ও চাচা বিয়েতে অনীহা প্রকাশ করেন। কিন্তু গুলশানার সত্মা আয়েশা বেগম তাঁর সিদ্ধান্তে অটল ছিলেন।

তিনি বিয়েতে রাজি হওয়ার জন্য গুলশানাকে প্রায়ই নির্যাতন করতেন। ঘটনার দিন গতকাল সকালেও নির্যাতন করেছেন বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। এরই একপর্যায়ে গুলশানা ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে বলে তাদের ভাষ্য। স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য কেরামত আলী এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এ বিষয়ে কুলাউড়া থানার এসআই হারুন অর রশীদ বলেন, ‘খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে গিয়ে আমরা মেয়ের লাশ উদ্ধার করেছি।’

কুলাউড়া থানার ওসি মো. শামীম মূসা জানান, লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজারে পাঠানো হয়েছে। থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা করা হয়েছে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech