ব্যবহৃত টি-ব্যাগের অসাধারণ ব্যবহার

  

পিএনএস ডেস্ক: টি-ব্যাগ ব্যবহারের পরে সেটি কী করেন? নিশ্চয়ই ফেলে দেন ময়লার ঝুলিতে। ফেলনা জিনিস তো ফেলে দেয়ারই নিয়ম। কিন্তু আপনার এই ব্যবহৃত টি-ব্যাগটিই আসতে পারে অনেক দরকারি কাজে।

পাস্তা তৈরিতে
এরপরের বার যখন আপনি জেসমিন রাইস কিংবা লেমনগ্রাস পাস্তা তৈরি করবেন তখন অবশ্যই আপনার ব্যবহৃত টি-ব্যাগটিও রাখুন। পাস্তা সেদ্ধ করার সময় ফুটন্ত পানিতে টি-ব্যাগটিও ঝুলিয়ে দিন। পানি ঝরানোর সময় টি-ব্যাগটি ফেলে দিন।

বাগানে
ব্যবহৃত টি-ব্যাগ দিয়ে পানি ফুটান। এবার সেই ফুটানো পানি ঠান্ডা করে গাছের গোড়ায় দিন। এটি গাছকে ফাঙ্গাল ইনফেকশন থেকে বাঁচাবে। ব্যবহৃত টি-ব্যাগের মুখ খুলে তা মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিন। এটি সারের কাজ করবে।

জুতার গন্ধ দূর করতে
জুতার ভেতরটা শুষ্ক এবং দুর্গন্ধমুক্ত রাখতে কিছুক্ষণের জন্য ব্যবহৃত টি-ব্যাগ রাখতে পারেন। এটি জুতা শুষ্ক ও দুর্গন্ধমুক্ত রাখতে সাহায্য করবে।

কাঁচ পরিষ্কার করতে
আসবাব কিংবা দরজা-জানালার কাঁচ পরিষ্কার করা বেশ কষ্টকর ব্যাপার। ব্যবহৃত টি-ব্যাগটি পুনরায় ফুটিয়ে সেই পানি ঠান্ডা করে কাঁচ পরিষ্কার করতে পারেন। আর তাতে অবশ্যই পরিষ্কার কাপড় ব্যবহার করবেন।

পেডিকিওর
ত্বকের মৃত চামড়া তুলে ফেলতে টি-ব্যাগ বেশ কার্যকরী। তাই পেডিকিওরের উপদান হিসেবে রাখতে পারেন ব্যবহৃত টি-ব্যাগ। এটি পেশী শিথিল এবং ব্যথা বা ফোলা রোগ নিরাময় করে।

কন্ডিশনার
আপনার চুল ঝলমলে আর উজ্জ্বল করতে নিশ্চয়ই কন্ডিশনার ব্যবহার করেন? ব্যবহৃত টি-ব্যাগটি আবার জ্বাল দিয়ে সেই পানি ঠান্ডা করে কন্ডিশনার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

হাঁড়ির দাগ দূর করতে
রান্না করতে গিয়ে ভুলবশত হাঁড়ি পুড়িয়ে ফেলতেই পারেন। কিন্তু হাঁড়ির সেই পোড়া দাগ দূর করা বেশ দুঃসাধ্য। এর সহজ সমাধান হচ্ছে ব্যবহৃত টি-ব্যাগ সেই পোড়া হাঁড়িতে দিয়ে ফোটাতে পারেন। তাতে করে পোড়া দাগ উঠে আসবে। আর হাঁড়ি হবে আগের মতোই ঝকঝকে।

এয়ার ফ্রেশনার
আপনার পছন্দের কোনো এসেন্সিয়াল অয়েলের কয়েক ফোঁটা ব্যবহৃত টি-ব্যাগে মিশিয়ে বাসায় টাঙিয়ে দিন। ঘরদোর সুবাসে ভরে উঠবে।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech