টেস্টে হোয়াট ওয়াস হয়ে একি বললেন সাকিব!

  

পিএনএস ডেস্ক:উইন্ডিজ সফর এখন পর্যন্ত হতাশা ছাড়া আর কিছুই দেয়নি বাংলাদেশ দলকে। অ্যান্টিগার পর জ্যামাইকা টেস্টেও সাকিবদের ১৬৬ রানের বড় ব্যবধানে পরাজিত করে সিরিজ জিতে নিয়েছে স্বাগতিকরা।

এই টেস্টে অবশ্য বল হাতে বেশ ভালোই পারফর্ম করেছিলেন বাংলাদেশের বোলাররা। প্রথম ইনিংসে স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ নিয়েছিলেন ৫ উইকেট। এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে অধিনায়ক সাকিব তুলে নিয়েছিলেন ক্যারিবিয়ানদের ৬টি উইকেট। কিন্তু মুদ্রার ঠিক উল্টো পিঠ যেন ব্যাটসম্যানদের ক্ষেত্রে।

মূলত তাদের জন্যই বাংলাদেশ দলকে হারতে হয়েছে এই টেস্টে। কেননা ক্যারিবিয়ানদের ছুঁড়ে দেয়া ৩৩৫ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে তাসের ঘরের মতোই ভেঙ্গে পড়েছিলো টাইগারদের ব্যাটিং লাইন আপ। ফলে তাদের অলআউট হতে হয়েছে মাত্র ১৬৮ রানে।

ব্যাটিং ব্যর্থতার বিষয়টি স্বীকার করলেন সাকিব আল হাসান। ব্যাটিং নিয়ে কোনো অজুহাতও দেননি তিনি। ম্যাচ শেষে পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সাকিব জানিয়েছেন ব্যাটিং নিয়ে এখনও অনেক কাজ করতে হবে তাদের। যদিও বোলিং নিয়ে কিছুটা সন্তুষ্ট তিনি। সাকিব বলেছেন, ‘এটি বেশ কঠিন ছিলো। আমি এতটা কঠিন হবে ম্যাচটি আশা করিনি। অনেক ব্যর্থতা নিয়ে কথা বলার আছে আমাদের। বিশেষ করে ব্যাটিং নিয়ে। বোলিং ভালো হয়েছে ম্যাচ যতো সামনে গড়িয়েছে। আমরা যে চার ইনিংস খেলেছি, একবারও সামর্থ্যের জানান দিতে পারিনি।’

তবে এরপরেও দলের প্রতি আস্থা রাখছেন অধিনায়ক। তার মতে আবারো ঘুরে দাঁড়ানোর সামর্থ্য রয়েছে তার দলের। পাশাপাশি সমস্যার কথাও তুলে ধরেছেন সাকিব। দেশের বাইরে খেলতে এখনও সকলে অভ্যস্ত হয়ে উঠতে পারেনি বিধায় এই পরাজয়ের সম্মুখীন হতে হচ্ছে বলে মনে করেন তিনি। সাকিবের ভাষায়, ‘দলের প্রতি আমার সর্বদা বিশ্বাস রয়েছে। আমাদের সম্ভাবনা রয়েছে ফিরে আসার। আমরা এমনটা করেছি গত ৩-৪ বছর ধরে।

তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে কৃতিত্ব দিতেই হবে। দেশের বাইরের পারফর্মসন্স একটি বড় ইস্যু। আমরা ১৮-১৯ বছর ধরে খেলছি এবং আমরা কখনো দেশের বাইরে ভালো খেলিনি। সুতরাং কোচ, ম্যানেজমেন্ট এবং বোর্ডকে এই নিয়ে অনেক কাজ করতে হবে।’

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech