‘মুমিনুলের কাছে যেটা চেয়েছি সেটা করেছে’

  

পিএনএস ডেস্ক : বাংলাদেশ ‘এ’ দলের আয়ারল্যান্ড সফর শেষ হচ্ছে আজ। কেমন হলো মুমিনুলদের আয়ারল্যান্ড সফর, সেটিই ফিরে দেখলেন দলের সঙ্গে থাকা সাবেক অধিনায়ক ও নির্বাচক হাবিবুল বাশার।

তিনি আজ ৪৭-এ পা দিলেন। শুভ জন্মদিন হাবিবুল বাশার। জবাবে একটা ধন্যবাদ দিলেন ঠিকই। তবে জানালেন, তাঁর কাছে এ ব্যক্তিগত দিবসের গুরুত্ব সামান্য, ‘ঘটা করে জন্মদিন পালন ভালো লাগে না। জীবন থেকে আরও একটা বছর ঝরে গেল!’

বাংলাদেশ ‘এ’ দলের সঙ্গে হাবিবুল এখন আয়ারল্যান্ডে। মুঠোফোন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেই দিতে হচ্ছে জন্মদিনে পাওয়া শুভেচ্ছার জবাব। জন্মদিন নিয়ে হাবিবুল খুব একটা উচ্ছ্বসিত না হতে পারেন, বাংলাদেশ দলের এই সাবেক অধিনায়ক ও বর্তমানে বিসিবির নির্বাচক ‘এ’ দলের আয়ারল্যান্ড সফরটা নিয়ে বেশ খুশি। আজ আইরিশদের বিপক্ষে সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টি দিয়ে শেষ হচ্ছে ‘এ’ দলের আয়ারল্যান্ড সফর। কেমন হলো সফরটা?

মুমিনুল হকের নেতৃত্বে আনঅফিশিয়াল ওয়ানডে সিরিজ ২-২ ড্র করেছে বাংলাদেশ ‘এ’। তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের নিষ্পত্তি এখনো হয়নি, ১-১ সমতায় আছে। ওয়ানডে সিরিজ জয় দিয়ে শুরু করা বাংলাদেশ ‘এ’ হোঁচট খেল দ্বিতীয়টিতে। আইরিশদের দেওয়া ২৪৬ তাড়া করতে পারেননি মুমিনুলরা। এই ম্যাচটা জিততে পারলে সিরিজটা ৩-১ ব্যবধানে জিততে পারত বাংলাদেশ ‘এ’। এতটুকু আফসোস বাদে পুরো সিরিজটা খারাপ যায়নি বলে মনে করেন হাবিবুল, ‘সিরিজটা ৩-১ হওয়া উচিত ছিল। দ্বিতীয় ম্যাচটা আমরা ভালো করতে পারিনি। ওরাও ভালো দল খেলিয়েছে। প্রায় জাতীয় দল খেলিয়েছে। এই সফরে ফলের চেয়ে আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ ছিল খেলোয়াড়দের দেখা। আমরা যে ভাবনা (কনসেপ্ট) নিয়ে আয়ারল্যান্ডে এসেছিলাম, সেটা অনেকটা কাজে দিয়েছে।’

কী ভাবনা নিয়ে বাংলাদেশ ‘এ’ দল আয়ারল্যান্ডে গেছে, সেটি ডাবলিন থেকে মুঠোফোনে বিশ্লেষণ করলেন হাবিবুল, ‘আইরিশ কন্ডিশনটা সব সময়ই আমাদের জন্য কঠিন। এবারের দলটা আমাদের প্রথাগত ‘এ’ দলের মতো নয়। ‘এ’ দল সাধারণত জাতীয় দলের সেতু হিসেবে কাজ করে। তবে এবার ‘এ’ দল আমরা করেছি আগামী দুই-তিন বছরের কথা চিন্তা করে। আমাদের চিন্তা হচ্ছে আগামী ২-৩ বছরের মধ্যে নতুন কিছু খেলোয়াড় তৈরি করা। ‘এ’ দলের সফর নিয়মিত যেহেতু হয় না, এবার সুযোগ যখন এসেছে, আমরা চেষ্টা করেছি, দুই-তিন বছর পর জাতীয় দলে যাদের চিন্তা করব তাদের একটু পরখ করে দেখতে। সে হিসেবে পারফরম্যান্স খুব একটা খারাপ হয়নি।’’

এবার ‘এ’ দলের আয়ারল্যান্ড সফরে সবচেয়ে বেশি আলোচিত হয়েছে মুমিনুলের ব্যাটিং। ৮ আগস্ট দ্বিতীয় ওয়ানডেতে তাঁর ১৮২ রানের দুর্দান্ত ইনিংসে ভর করে বাংলাদেশ ‘এ’ গড়ে ৪ উইকেটে ৩৮৬ রানের বড় স্কোর। ৫ ম্যাচে ৭৪.২৫ গড়ে ১০০ স্ট্রাইকরেটে ২৯৭ রান করে ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশ ‘এ’ দলের সবচেয়ে সফল ব্যাটসম্যান তিনিই। দুর্দান্ত এ পারফরম্যান্সের পর মুমিনুল কি অন্তর্ভুক্তির জন্য বিবেচিত হবেন বাংলাদেশ ওয়ানডে দলে—এমন একটি আলোচনা আছে দেশের ক্রিকেটে।

‘এ’ দলের সঙ্গে থাকা নির্বাচক হাবিবুল এখনই মুমিনুলকে নেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত না করতে পারলেও তিনি বাঁ হাতি টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানের ব্যাটিং নিয়ে বেশ তৃপ্ত, ‘মুমিনুল যখন বাদ পড়ে তখনো তার স্ট্রাইক রেট ছিল ৭৪-এর ওপরে। খুব বেশি ব্যাটসম্যান তার চেয়ে এগিয়ে ছিল না। আজ হোক, কাল হোক মুমিনুলকে লাগবে। এখানে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে দলের ভাবনাটা। ও যখন বাদ পড়েছে তখন হয়তো মনে হয়েছিল টপ অর্ডারে একজন ব্যাটসম্যান দরকার যে বিস্ফোরক শুরু এনে দিতে পারবে। এখন আবার মনে হচ্ছে ধরে খেলতে পারবে, ইনিংসটা লম্বা করতে পারবে, এমন একজনকে দরকার। সবই আসলে দরকার। মুমিনুলের কাছে যেটা চেয়েছিলাম সেটা সে করেছে। দেখা যাক সামনে দলের ভাবনাটা কী দাঁড়ায়।’

মুমিনুল তো আছেনই, এবার বাংলাদেশ ‘এ’ দলের আয়ারল্যান্ড সফরে আরও কিছু প্রাপ্তি খুঁজে পাচ্ছেন হাবিবুল, ‘মুমিনুল অনেক দিন একদিনের ম্যাচ খেলে না। ওর জন্য তাই কাজটা কঠিন হয়ে যায়। এক ম্যাচে খুব একটা ভালো করতে পারেনি। তবে বাকিগুলোয় দেখার মতো ব্যাটিং করেছে। সৌম্য একটা টি-টোয়েন্টিতে রান পেয়েছে। ও যদি একদিনের ম্যাচগুলো খেলতে পারত আরও দেখতে পারতাম। উইকেট বেশ ভালো ছিল। গ্রীষ্মকালটা ভালো গেছে এখানে। অতটা সুইং ছিল না। নতুন কিছু বোলার পেয়েছি। খালেদ-শরিফুলের বোলিং মুগ্ধ করেছে। সানজামুল, তাইজুলও বেশ ভালো বোলিং করেছে। সব মিলিয়ে সফরটা সফল, কাজে দিয়েছে।’

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech