চিকিৎসার নামে যৌন হয়রানি, মুখ খুললেন অলিম্পিক স্বর্ণজয়ী

  


পিএনএস ডেস্ক: চিকিৎসার নামে যৌন হয়রানি জন্য অভিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে এবার মুখ খুলেছেন চারবারের অলিম্পিক স্বর্ণজয়ী এক খেলোয়াড়।

ওই চিকিৎসকের নাম ল্যারি নাসের। তার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ এনেছেন রিও অলিম্পিকে যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে চারটি স্বর্ণ আর এক বোঞ্জ জয়ী সিমোন বেলিস।

টুইটারে যৌন হয়রানিবিরোধী জনপ্রিয় ‘# মি ঠু’ ট্যাগের প্রচারে সম্পৃক্ত হয়ে নিজের দুঃসহ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন সিমোন।

এতে তিনি উল্লেখ করেন, যৌন হয়রানির ঘটনায় খেলাধুলার জন্য তার ভালোবাসা আর আনন্দ কেড়ে নিতে পারেনি।

ঘটনা প্রসঙ্গে সিমোন বলেন, ‘এই ভোগান্তির কথা বর্ণনা করা কঠিন। এটি আমার জন্য আরো কষ্টকর হয়, যখন ২০২০ সালের টোকিও অলিম্পিকের প্রস্তুতির জন্য আমার সেই প্রশিক্ষণ ক্যাম্পে আসতে হয়, যেখানে আমি যৌন হয়রানির শিকার হয়েছি।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমি এই খেলাকে খুব ভালোবাসি এবং আমি কখনই এটি ত্যাগ করে যাব না। আমি কোন ব্যক্তিকে বা যারা তাকে প্রশ্রয় দিয়ে দিয়েছে তাদের এই সুযোগ দেব না, যাতে তারা আমার ভালোবাসা আর আনন্দকে চুরি করতে পারে।’

শিশু যৌনতার ছবি সংরক্ষণ আর জিমন্যাস্টিকদের হয়রানি করার অভিযোগে এর মধ্যেই অবশ্য ল্যারি নাসেরের ৬০ বছরের কারাদণ্ড হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে।

তার বিরুদ্ধে চিকিৎসার নামে যৌন হয়রানির অভিযোগ করেছেন আরো তিন মার্কিন অলিম্পিয়ান, যাদের মধ্যে রয়েছেন স্বর্ণজয়ী গ্যাবি ডগলাসও।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech